বাবাকে 'সর্দারজি' বলছে তৈমুর, 'জওয়ানি জানেমন'-এ ক্যাসানোভা সইফ! হচ্ছেটা কী?

বাবাকে 'সর্দারজি' বলছে তৈমুর, 'জওয়ানি জানেমন'-এ ক্যাসানোভা সইফ! হচ্ছেটা কী?

লম্বা চুল। চোখে হিংস্র দৃষ্টি। শরীর ঢাকা পোশাকে এক যোদ্ধার চরিত্রে তিনি। অর্থাৎ সইফ (Saif) আলি খান। শুক্রবার মুক্তি পেল অজয় দেবগণ এবং কাজল অভিনীত 'তানাজি (Tanhaji): দ্য আনসাং ওয়ারিয়র'। সেখানেই মুখ্য অ্যান্টাগনিস্ট অর্থাৎ ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করছেন সইফ। আর নতুন ছবিতে বাবার লুক দেখে নাকি তাঁকে সর্দারজি বলে ডাকতে শুরু করেছে ছোট্ট তৈমুর (Taimur)।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সইফ জানিয়েছেন, 'তানাজি'তে সইফকে দেখার পর নাকি বার বার তাঁর দিকে ঘুরে ঘুরে দেখছিল তৈমুর। তারপর হঠাৎ করেই নাকি বাবাকে সর্দারজি বলে ডাকতে শুরু করে সে। এই শুনে রসিক নেটিজেনদের মন্তব্য, আফটার অল ফিল্মি পরিবারের ছেলে তৈমুর নিজের মতো ভেবে নিয়েছে এক চরিত্র! তৈমুর জন্মের আগে থেকেই লাইমলাইটে রয়েছে। এতে অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছেন কপূর এবং খান পরিবারের সদস্যরা। বাবাকে সর্দারজি বলে ডেকে ফের একবার শিরোনামে চলে এল এই স্টার কিড।

এই ছবিতে মারাঠা যোদ্ধা তানাজির ভূমিকায় অভিনয় করছেন অজয় দেবগণ। তাঁর স্ত্রী সাবিত্রী বাঈয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন কাজল। ইতিহাস বলে, মারাঠা যোদ্ধা তানাজি ছত্রপতি শিবাজি মহারাজের সঙ্গেও কিছু যুদ্ধ করেছিলেন। তাঁর বীরগাথা নিয়েও চর্চা রয়েছে। সুতরাং এই ছবি আদতে একটি পিরিয়ড ড্রামা।  

 

'তানাজি'র একটি দৃশ্যে সইফ। (Instagram)

সইফের চরিত্রের নাম উদয়ভান সিং রাঠৌর। 'ওমকারা'র পর ফের অজয় এবং সইফ স্ক্রিন শেয়ার করছেন। ফলে সেই দ্বৈরথ দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন সিনেপ্রেমীরা। এই ছবিটি অজয়ের কেরিয়ারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ২০০৮-এ 'ইউ মি অউর হম'-এ শেষবার কাজলের সঙ্গে বড়পর্দায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। ১১ বছর পরে ফিরছেন দম্পতি। ফিরছেন পিরিয়ড ড্রামা নিয়ে। কিন্তু সেটা অন্যতম কারণ হলেও, এই ছবি স্পেশ্যাল হওয়ার পিছনে মূল কারণ হল, এটি অজয়ের কেরিয়ারের ১০০তম ফিল্ম।

 

জানুয়ারির শেষে মুক্তি পাবে সইফের আরও একটি ছবি 'জওয়ানি জানেমন' (Jawaani Jaaneman)। প্রায় দু'দশকের বেশি সময়ের পর ফের বড় পর্দায় একসঙ্গে দেখা যাবে তব্বু এবং সইফকে। এর আগে এই জুটিকে দেখা গিয়েছিল 'তু চোর মে সিপাহি', 'বিবি নম্বর ১' এবং 'হাম সাথ সাথ হ্যায়' ছবিতে। সদ্য মুক্তি পেয়েছে সে ছবির ট্রেলার। সইফ সেখানে অনেকটা ক্যাসানোভার চরিত্রে। আবার সিরিয়াস ভাবমূর্তি ছেড়ে তব্বুও একেবারে অন্যরকম। তবে আলাদা করে নজর কেড়ে নিচ্ছেন আলিয়া ফার্নিচারওয়ালা। তিনি কবীর বেদি ও প্রতিমা বেদীর একমাত্র মেয়ে পূজা বেদী ও ফারহান ফার্নিচারওয়ালার মেয়ে। সব মিলিয়ে ২০২০-র শুরুটা কেরিয়ারের দিক থেকে দারুণ হয়েছে সইফ আলি খানের। সারা বছরটা তাঁর কেমন কাটবে, সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন অনুরাগীরা। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!