শার্ট পরলে বুকের কাছে ফাঁকা হয়ে থাকে? এই টিপসগুলি মেনে চলুন তা হলে

শার্ট পরলে বুকের কাছে ফাঁকা হয়ে থাকে? এই টিপসগুলি মেনে চলুন তা হলে

অফিসের কোনও মিটিংয়ে হোক, কোনও ক্লায়েন্টের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার জন্য হোক অথবা চাকরির ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার জন্য – অনেকসময়ই আমরা পশ্চিমি পোশাক পরি এবং তা অবশ্যই বিজনেস আউটফিট! কখনও হয়তো ফর্মাল প্যান্টসের সঙ্গে আবার কখনও হয়তো বিজনেস স্কার্ট-এর সঙ্গে আমরা ফর্মাল বাটনডাউন শার্ট পরেই থাকি। তবে একটা সমস্যার মুখোমুখি আমরা অনেকেই হই, যখন আমরা শার্ট (shirt) পরি, তখন কখনও-কখনও বুকের কাছে আমাদের শার্ট একটু ফাঁকা (gap) হয়ে থাকে, যা দেখতে তো খারাপ তো লাগেই, উপরন্তু লজ্জার বিষয়ও হয়ে দাঁড়ায়। কীভাবে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন (hacks) আজ সেই বিষয়েই কথা বলব।

নিজের মাপের চেয়ে এক সাইজ বড় শার্ট কিনুন

এটি হল সবচেয়ে সহজ এবং সুবিধেজনক হ্যাক বা ব্যবস্থা। আপনি যে মাপের শার্ট পরেন, তার চেয়ে ঠিক এক সাইজ বড় শার্ট কিনুন এবার থেকে। দেখবেন, তাতে আর বুকের কাছে ফাঁকা হয়ে থাকবে না। ধরুন, আপনি মিডিয়াম সাইজের শার্ট পরেন এবং তার ফলে কখনও-কখনও বুকের কাছে দুটো বোতামের মধ্যে একটু ফাঁকা হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে এবার থেকে লার্জ সাইজের শার্ট পরুন। যদি দেখেন যে এর ফলে কাঁধের দিকটা নেমে আসছে, তা হলে কাঁধের দিকটা একটু সেলাই করে নিন।

সঠিক অন্তর্বাস পরুন

আপনি যে পোশাকটি পরছেন, তা পরে আপনাকে কেমন দেখাবে, তার অনেকটাই কিন্তু নির্ভর করে আপনি ভিতরে কেমন অন্তর্বাস পরেছেন, তার উপরে। আপনি শাড়ি-ব্লাউজের সঙ্গে পরার অন্তর্বাস যদি শার্ট বা টিশার্টের সঙ্গেও পরেন, তা হলে কিন্তু দেখতে খুব খারাপ লাগবে। আবার শার্টের সঙ্গে কোনওদিন ভুল করেও পুশ-আপ ব্রা পরবেন না, এতে দেখতে ভাল লাগে না এবং বুকের কাছে ফাঁকা হয়ে থাকার আশঙ্কাও বেশি থাকে।

সেফটিপিন ব্যবহার করুন

হয়তো আপনি অফিসে রয়েছেন এবং আপনি নিজেও খেয়াল করলেন না যে, কখন আপনার শার্টটা বুকের কাছে ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। হয়তো কোনও সহকর্মী আপনাকে জানালেন। এমন পরিস্থিতিতে তো আর আপনি নতুন শার্ট কিনতে ছুটবেন না! তা হলে কী করবেন? ব্যাগে সবসময় একপাতা সেফটিপিন রাখুন। এই ছোট্ট বস্তুটি কিন্তু অনেক কাজের! ওয়াশরুমে গিয়ে শার্টের যে জায়গাটা ফাঁকা হয়ে আছে সেখানে ভিতরের দিক থেকে সেফটিপিন লাগিয়ে নিন। একটাই সেফটিপিন লাগাবেন না। এতে শার্টের বুকের কাছটা কুঁচকে থাকতে পারে এবং দেখতে খারাপ লাগবে। দুটো সেফটিপিনের সাহায্যে গ্যাপ বন্ধ করুন।

ডবল-বাটন শার্ট পরুন

যখন আপনার জন্য ফর্মাল শার্ট কিনবেন চেষ্টা করুন ডবল-বাটন শার্ট কেনার। ডবল-বাটন শার্ট অর্থাৎ শুধু একদিকে নয়, দু’দিকেই বোতামওয়ালা শার্ট। এরকম শার্টে বুকের কাছেই এই ব্যবস্থা থাকে যাতে ওই জায়গাটা ফাঁকা না হয়ে থাকে। যে-কোনও ভাল ব্র্যান্ডেড শার্টে এই ব্যবস্থা থাকে। আর যদি আপনি ডবল-বাটন শার্ট না পান, তা হলে নিজেই একটা বোতাম আর বোতামের ঘাট সেলাই করে নিন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!