হাত গুটিয়ে বসে থাকলে প্রেমের সম্পর্ককে মজবুত রাখা সম্ভব নয়। in bengali | POPxo

নতুন করে সম্পর্ক শুরু করার কথা ভাবছেন? তা হলে এই ভুলগুলো যেন ভুলেও করবেন না

নতুন করে সম্পর্ক শুরু করার কথা ভাবছেন? তা হলে এই ভুলগুলো যেন ভুলেও করবেন না

কী হে, জীবনে আবার নতুন করে প্রেমের হাওয়া বইছে বুঝি? তা বেশ, এক জায়গায় আটকে থাকলে চলবে নাকি! সব ভুলে গিয়ে যে আবার নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন, এটাই তো চাই। তবে যে ভুলগুলো আগের বার করে ঠকেছেন, সেই ফাঁদে যেন আর একবার পড়বেন না। সঙ্গে নতুন কিছু নিয়মও মেনে চলতে হবে। নিয়মকানুনের প্রসঙ্গ শুনে অবাক যাচ্ছেন নাকি? হবেন না! শুনুন, খেলায় নিয়ম ভাঙলে যেমন পেনাল্টি হয়, ঠিক তেমনই প্রেমের খেলারও কিছু নিয়ম আছে, যা সম্পর্ককে আঁটোসাঁটো রাখতে সাহায্য করে। তাই এবার যদি লম্বা ইনিংস খেলতে চান, তা হলে এই ভুলগুলো এড়িয়ে চলতে হবে। কী-কী নিয়ম সেই লিস্টে থাকবে জেনে নিন। 

১. পার্টনারের ভুলগুলো চোখে আঙুল দিয়ে দেখাবেন না প্লিজ

পার্টনারের ভুল ধরার খেলা ছাড়তে হবে
Pexels

যে-কোনও সম্পর্ক শুরুর কয়েকমাস সবাই এমন ঘোরে থাকে যে, আসল মানুষটাকে চিনেই উঠতে পারেন না। ঘোর কাটতে শুরু করলেই প্রেমিকের আসল রূপটা সামনে এসে যায়। তখন পার্টনারের এই ভাল লাগছে না, ওই ভাল লাগছে না বলে কেউ-কেউ যেখানে কান্নাকাটি জুড়ে দেন, সেখানে অনেকেই আবার কথায়-কথায় চিৎকার-হল্লাহাটি করতেও পিছপা হন না। বিশেষ করে ভুলগুলো ধরিয়ে দিতে তো আমাদের সেকেন্ডও সময় লাগে না! এই ভুল কাজটা আর করা চলবে না। মনে রাখবেন, নিজের ভুলের কথা বার বার শুনতে কারও ভাল লাগে না। তাই বারে-বারে এমন কাজ করলে এক সময় পার্টনার আপনার উপর বীতশ্রদ্ধ হয়ে হয় পালানোর চেষ্টা করবেন, নয়তো ঝগড়াঝাঁটি বাধাবেন। এভাবে কি আর সম্পর্ক ঠিকবে? মনে তো হয় না!

তাই পার্টনার কোনও ভুল করে ফেললে সেই নিয়ে গজগজ না করে ঠান্ডা মাথায়, শান্ত ভাবে সবটা তাঁকে বুঝিয়ে বলুন। কোথায় ভুলটা হয়েছে, কেন আপনার দুঃখ লেগেছে, তা ওঁকে ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন। একই পরিস্থিতিতে তাঁকেও এই নিয়মটা মেনে চলার অনুরোধ করুন। মনে রাখবেন, আমরা কেউই ১০০ শতাংশ পারফেক্ট নেই। কিছু না কিছু দোষ আপনার যেমন আছে, তেমনই আপনার পার্টনারেরও কিছু খারাপ দিক রয়েছে। ভালর পাশাপাশি এই খারাপ দিকটাও মেনে নিতে হবে। শুধু তাই নয়, তাঁকে এই খারাপ দিকগুলো এড়িয়ে চলার জন্য উৎসাহ দিতে হবে। নিজেও নিজের মন্দ দিকটা সামনে আনবেন না। মোট কথা যে যেমন, ঠিক সেই ভাবে একে অপরকে গ্রহণ করুন। দেখবেন, ঝগড়াঝাঁটি তো কমবেই। এমনকী, সম্পর্কে যতিচিহ্ন পড়ার আশঙ্কাও আর থাকবে না। সুখের হবে প্রেমের সম্পর্ক (relationship)।

২. আগামী দিনের লক্ষ্য স্থির করুন দু'জন মিলে

আপনি ও আপনার পার্টনার একমত হয়ে কাজ করুন
Pixabay

এই জীবনে আপনার যেমন কিছু স্বপ্ন রয়েছে, ঠিক তেমনই পার্টনারও নিশ্চয়ই কিছু না কিছু লক্ষ্যের পিছনে দৌঁড়াচ্ছে। কিন্তু এখন থেকে আর এমন আলাদা-আলাদা রাস্তায় দৌড়ালে চলবে না। বরং দু'জনে আলোচনা করে 'কমন গোল' সেট করতে হবে। কিছু স্বার্থত্যাগ আপনাকে যেমন করতে হবে, ঠিক তেমনই পার্টনারকেও কিছু স্বপ্নের পিছু ছাড়তে হবে। তবেই না খেলা জমে উঠবে। আর তা না করে যদি নিজের নিজের লাইনে দৌড়তে থাকেন, তা হলে একসঙ্গে এক ছাদের তলায় থেকেও কোনও লাভ নেই। কারণ, ট্রেন লাইনের মতো আপনাদের জীবনের লাইন যদি এক না হয়, তা হলে সম্পর্ক টিকবে কীভাবে বলুন?

৩. মাঝে-মাঝে relationship detox জরুরি

মাঝে-মাঝে relationship detox জরুরি
Pixabay

এক চেষ্টায় মনের মতো জীবনসঙ্গীর খোঁজ পয়ে যাওয়াটা সত্যিই ভাগ্যের বিষয়। অনেকেই এত ভাগ্যবান হন না। তাই তো ভাল মানুষের খোঁজ পাওয়ার স্বপ্ন নিয়ে বহু বার মন ভাঙার খেলায় মেতে উঠতে কেউই পিছপা হন না। হওয়া উচিত নয়। তবে একটা বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন। তা হল, কোনও সম্পর্ক ভেঙে যখন আর একটি সম্পর্কে নিজেকে জুড়ছেন, তখন অতীত নিয়ে ভাবনা-চিন্তা না করাই উচিত। বরং relationship detox জরুরি। গোদা বাংলায় বললে এক্সকে সম্পুর্ণ ভুলে যেতে হবে। তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়ায় স্টক করা যেমন চলবে না, তেমনই বর্তমান পার্টনারের সঙ্গে এক্সের তুল্যমূল্য বিচার করলেও ভুল করবেন। মনে রাখবেন, আগের সম্পর্কে সুখে ছিলেন না বলেই কিন্তু নতুন করে বাঁচার চেষ্টা করছেন। তাই ছেড়ে আসা সম্পর্কের বিষ যাতে কোনওভাবেই নতুন সম্পর্ককে বিষিয়ে দিতে না পারে, তা সুনিশ্চিত করা আপনার দায়িত্ব। আর ঠিক এই কারণেই এক্সের সঙ্গে সব যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিতে হবে। আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে তাঁকে আনফ্রেন্ড করতে যেমন দেরি করবেন না, তেমনই ফোন নম্বরও ডিলিট করে দিতে হবে। সব ভুলে নতুন সূর্যের মতো একেবারে শূন্য থেকে জীবন শুরু করতে হবে, যে জীবনে প্রেম ছাড়া আর কিছুই থাকবে না।

৪. এক আত্মা-এক প্রাণ হয়ে ওঠার চেষ্টায় ঘাম ঝরাতে হবে

সম্পর্ক শুরু করার পর এক হয়ে যান
Pixabay

'লাভ ইজ কম্পোজড অব এ সিঙ্গল সোল ইনহ্যাবিটিং টু বডিস!' অ্যারিস্টটলের এই কথাটা মনে গেঁথে নিয়ে চেষ্টায় লেগে পরুন। নিজের নয়, বরং পার্টনারের ইচ্ছে আর স্বপ্নকে গুরুত্ব দিন। দু'জনে মিলে যেমন নিজের কথা ভুলে গিয়ে 'কমন গোল' সেট করেছেন, ঠিক তেমন ভাবেই জীবনের প্রতিটা বাঁকে পার্টনারের উপর বিশ্বাস রেখে তাঁর সিদ্ধান্তকে সম্মান করার চেষ্টা করুন। একে অপরকে সম্মানের চোখে দেখুন। মনের কথা যাতে খুলে বলতে পারেন, তেমন পরিবেশ তৈরি করুন। আর অবশ্যই মনে জমতে থাকা অভিমানের কথাগুলো সুযোগ পেলেই বলে ফেলুন। এই ভাবেই তো আপনারা একে অপরের মন বুঝতে শিখবেন। দু'জনের ভাল-মন্দের খোজ পাবেন। আর তখনই তো সম্পর্ক তার গভীরতা খুঁজে পাবে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!