হাতের মেদ লুকোতে ব্লাউজ পরার এই টিপসগুলো মেনে চলুন

হাতের মেদ লুকোতে ব্লাউজ পরার এই টিপসগুলো মেনে চলুন

একটা ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে চাই আপনাদের সঙ্গে। কিছুদিন আগে বিয়েবাড়ি যাব বলে তৈরি হচ্ছিলাম। এমনিতে সব সময়ে শাড়ি পরার সুযোগ হয়ে ওঠে না, কিন্তু বিয়েবাড়িতে যাওয়ার সময়ে শাড়ি পরার সুযোগটাকে কাজে লাগাতে হয়! শাড়ির সঙ্গে ম্যাচিং ব্লাউজও (blouse) পড়লাম, সঙ্গে আনুষঙ্গিক গয়না। রেডি হয়ে বেরনোর ঠিক আগে আয়নায় একবার নিজেকে দেখে নেওয়ার পালা সারতে গিয়ে ব্যাপারটা চোখে পড়ল। ব্লাউজের (blouse) বাইরে যতটা হাতের অংশ বেরিয়ে আছে, বড্ড মোটা (arm fat) দেখাচ্ছে! মনটা কেমন খারাপ হয়ে গেল। কিন্তু তাড়াহুড়ো ছিল বলে বেরিয়ে যেতে হল। পরে আমারই এক বন্ধু আমাকে বেশ কয়েকটা ফ্যাশন টিপস দিল যাতে ব্লাউজ পরলে হাতের উপরের অংশ মোটা (arm fat) দেখতে না লাগে। ভাবলাম, আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নিই টিপসগুলো, যদি আপনাদের কারও কাজে লাগে!

১। সঠিক ফ্যাব্রিক বাছুন

ব্লাউজ (blouse) আপনি কিনেই পরুন অথবা তৈরি করিয়ে, কীরকম ফ্যাব্রিকের ব্লাউজ পরছেন তার উপরে কিন্তু আমাদের শরীরের গঠনের ইলিউশন অনেকটাই নির্ভর করে। যেমন ধরুন যদি আপনি আপনি যদি ব্রোকেড বা ভারী কোনও ফ্যাব্রিকের ব্লাউজ (blouse) পরেন, সেক্ষেত্রে হাতের উপরের অংশ (arm fat) দেখতে মোটা লাগে। আবার রেয়ন, সিল্ক বা শিফনের ব্লাউজ পরলে যেহেতু এই ফ্যাব্রিকগুলি শরীরের সঙ্গে সেঁটে থাকে, কাজেই দেখতে ভাল লাগে। আপনার যদি হাতের উপরের অংশে মেদ থাকে তাহলে আপনি কোনও হালকা ফ্যাব্রিকের ব্লাউজ পরলে ভাল।

২। ব্লাউজের হাতা কতটা লম্বা, ভেবে নিন

কেপ হাতা ব্লাউজ এখন ফ্যাশনে ইন, আর হাতের মেদও অনায়াসে লুকোতে পারেন (ছবি: ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে)

ব্লাউজের (blouse) হাতা কীরকম তার উপরেও কিন্তু নির্ভর করে আমাদের হাত দেখতে কেমন লাগবে। যদি আপনার হাতের ঊর্ধ্বাংশে মেদ (arm fat) থাকে এবং তা আপনি চট করে লুকিয়ে ফেলতে চান, তাহলে একটু লম্বা হাতার ব্লাউজ পরুন। কনুইয়ের নীচ পর্যন্ত অথবা থ্রি-কোয়ার্টার ব্লাউজ পরলে হাতের উপরের অংশ দেখা যাবে না এবং খুব স্বাভাবিকভাবেই হাতের মেদও লুকোতে পারবেন। কিন্তু ফুলহাতা বা স্লিভলেস ব্লাউজ পরবেন না। আপনি চাইলে কেপ-হাতা বা বাটারফ্লাই হাতার ডিজাইনের ব্লাউজও পরতে পারেন।

৩। ব্লাউজের ফিটিং-এর উপরে নজর দিন

যে-কোনও পোশাকেরই যদি ফিটিং ঠিক না হয় তাহলে যত দামি পোশাকই পরুন না কেন, দেখতে ভাল লাগে না। এই ব্যাপারটি ব্লাউজের হাতার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। যদি ব্লাউজের হাতার ফিটিং ঠিক না হয় তাহলে কিন্তু আপনি যত ট্রেন্ডি ডিজাইনের ব্লাউজই পরুন না কেন, হাতের মেদ বোঝা যাবে। কাজেই যখন ব্লাউজ কিনবেন অথবা দর্জির কাছে মাপ দিয়ে তৈরি করাবেন, সবসময়ে খেয়াল রাখুন ব্লাউজের হাতা যেন খুব বেশি টাইটও না হয় আবার খুব ঢিলেও না হয়।

আরও পড়ুন - কাঁধ চওড়া বলে বুঝতে পারেন না কেমন পোশাক পরবেন? রইল জরুরি কিছু ফ্যাশন টিপস

৪। ব্লাউজের হাতায় যেন খুব বেশি কাজ করা না থাকে

কাজ করা থাকলেও সুতোর কাজ বা হালকা ছিমছাম কাজ করা ব্লাউজ পরুন (ছবি: ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে)

হয়তো আপনার কোনও আত্মীয়া বা বন্ধুকে দেখলেন যে দারুণ কাজ করা একটি ব্লাউজ পরেছেন তিনি, আর আপনিও সঙ্গে সঙ্গে সেরকম ভারী কাজ করা ব্লাউজ তৈরি করে পরে ফেললেন – না প্লিজ সেটি করবেন না। আপনার হাতের উপরের অংশ যদি মোটা হয় বা মেদ (arm fat) থাকে, তাহলে খেয়াল রাখবেন ব্লাউজের (blouse) হাতায় যেন ভারী কাজ না থাকে। চুমকি, জরি বা স্টোন বসানো ব্লাউজ এড়িয়ে চলুন। না, একেবারেই বলছি না যে সাদামাটা ব্লাউজ পরুন, কিন্তু কাজ করা থাকলেও সুতোর কাজ বা হালকা ছিমছাম কাজ করা ব্লাউজ পরুন। এতে হাতের মেদ বোঝা যাবে না।

৫। গাঢ় রঙের ব্লাউজ পরুন

কালো, খয়েরি, গাঢ় মেরুন, গাঢ় পার্পল, নেভি ব্লু বা বটল গ্রিন – এরকম রঙের ব্লাউজ পরার চেষ্টা করুন। গাঢ় রঙ আমাদের শরীরের মেদ লুকোতে সাহায্য করে। কাজেই আপনার হাতের উপরের অংশে যদি মেদ থাকে তাহলে অবশ্যই গাঢ় রঙ বেছে নিন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!