হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত রোগীদের জন্য সম্ভাব্য ডায়েট চার্ট

হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত রোগীদের জন্য সম্ভাব্য ডায়েট চার্ট in bengali

আজকাল কম বেশি প্রত্যেকেই নানা রকম লাইফস্টাইল ডিজিজের শিকার। আর তার মধ্যে থাইরয়েড (recommended diet chart for hypothyroidism) একটি অত্যন্ত কমন অসুখ। না, এটি কোনও জীবাণুঘটিত সমস্যা নয়, আমাদের জীবনজাপনের ফলাফল বলতে পারেন। থাইরয়েড আবার দুই ধরণের হয় – হাইপো এবং হাইপার। আর এর ফলেই কারও ওজন ক্রমশ বাড়তে থাকে, আবার কারও কমতে থাকে। থাইরয়েডের রোগীরা নিয়মিত ওষুধ খান ঠিকই, তবে ওষুধের পাশাপাশি যদি খাদ্যাভ্যাসে কিছু পরিবর্তন আনা যায়, তাহলে সুফল মেলে। আজ আমরা হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত রোগীদের কী কী খাওয়া উচিত আর কী কী এক্কেবারে খাওয়া চলবে না, তা নিয়েই আলোচনা করব।

Beauty

Manish Malhotra Antimicrobial Sanitizing Spray

INR 349 AT MyGlamm

হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত রোগীদের একটি সম্ভাব্য ডায়েট চার্ট

ভোরবেলা: এক কাপ উষ্ণ জলে একটি গোটা পাতিলেবুর রস মিশিয়ে খালি পেটে খেতে হবে

প্রাতরাশ: একটি সেদ্ধ ডিম, ফ্ল্যাক্স সীড মেশানো ওটস এক বাটি, তিনটি ব্রাজিলিয়ান বাদাম

দুপুরের খাবার: আম, কলা এবং আপেল বাদে যে-কোনোও ফল দিয়ে তৈরি স্যালাড (recommended diet chart for hypothyroidism) এক বাটি অথবা দুটো চিংড়ি ও এক বাটি লেটুস পাতা

সন্ধের টিফিন: একটি গোটা বেদানা বা এক গ্লাস ডাবের জল

রাতের খাবার: সব রকম সবজি দিয়ে তৈরি (আলু বাদে) এক বাটি ডাল

Beauty

WIPEOUT Germ Killing Body Spray

INR 149 AT MyGlamm

হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত হলে কী কী খাবার একেবারেই খাবেন না

যাঁদের হাইপো থাইরয়েডের সমস্যা রয়েছে (recommended diet chart for hypothyroidism) তাঁদের মধ্যে হঠাত করে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। ফলে এমন কিছু খাওয়া উচিত নয়, যাতে খামোখা ওজন বাড়ে। এখানে একটি তালিকা দেওয়া হল যে খাবারগুলি হাইপো থাইরয়েডের আক্রান্ত রোগীদের খাওয়া উচিত না –

  • গ্রিন টি
  • চিনি
  • গ্লুটেনযুক্ত খাবার
  • কাঁচা শাক-সবজি
  • অর্ধেক রান্না করা খাবার
  • ব্রোকলি, সোয়াবিন, বাঁধাকপি, পালং শাক
  • ভাজাভুজি
  • প্রসেসড ফুড

Beauty

WIPEOUT Sanitizing Wipes 25 Wipes Pack

INR 159 AT MyGlamm

হাইপো থাইরয়েডে আক্রান্ত রোগীরা কী কী খাবার নিশ্চিন্তে খেতে পারেন

দেশি মুর্গি: যারা মাংস খেতে ভালবাসেন, তাঁরা কিন্তু হাইপো থাইরয়েড থাকলেও মাংস খেতে পারেন, তবে তা যেন হয় দেশি মুর্গির মাংস। কারণ, এতে রয়েছে জিঙ্ক যা হাইপো থাইরয়েডের বিরুদ্ধে গিয়ে শরীরে TSH-কে ট্রিওডোথাইরোনিন (T3) ও থোরোক্সিনে রূপান্তরিত করতে সাহায্য করে।

ডাল: ডালে রয়েছে প্রচুর আয়ডিন ও জিঙ্ক যা হাইপো থাইরয়েড নিয়ন্ত্রন করতে এবং কমাতে সাহায্য করে। তবে শুধু ডাল নয়, যে-কোনও শিম জাতীয় শস্যই খেতে পারেন। রাজমা, মটনশুঁটি, ছোলা ইত্যাদি রোজের ডায়েটে (recommended diet chart for hypothyroidism) রাখুন।

প্রচুর পরিমানে জল: সারা দিনে অন্তত তিন-চার লিটার জল পান করতেই হবে। এতে যে শুধু থাইরয়েডের সমস্যা ঠিক হবে তা নয়, শরীরে জমে থাকা টক্সিনও বেরিয়ে যাবে।

এছাড়াও –

  • দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার
  • ডিমের সাদা অংশ
  • রুই, কাতলা, সারডিন, টুনা, চিংড়ি জাতীয় মাছ
  • টেংরির জুস

বিশেষ দ্রষ্টব্য: যারা হাইপো থাইরিয়েডের সমস্যায় ভুগছেন, তাঁরা যে বাইরের জাঙ্ক ফুড একেবারেই খেতে পারবেন না, তা তো বোঝা গেল; কিন্তু তার মানে এই নয় যে সুস্বাদু খাবারটুকুও খেতে পারবেন না। যে খাবারই রান্না করুন না কেন, তা এক্সট্রা ভারজিন অলিভ অয়েলে রাঁধুন। এই তেলে এমন কিছু উপাদান রয়েছে হাইপো থাইরয়েডের (recommended diet chart for hypothyroidism) সমস্যা নিয়ন্ত্রন করতে সাহায্য করে। এছাড়াও, টেবিল সল্টের বদলে সম্ভব হলে আয়োডিনযুক্ত নুন খান, অথবা পিঙ্ক সল্টও খেতে পারেন।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!