home / Natural Care
চাল ধোয়া জল বা রাইস ওয়াটার আপনার ত্বক ও চুলের কী কী উপকার করে জানেন?

চাল ধোয়া জল বা রাইস ওয়াটার আপনার ত্বক ও চুলের কী কী উপকার করে জানেন?

চুল ও ত্বকের যত্নে রাইস ওয়াটারের ব্যবহারে রীতি ছিল প্রাচীন জাপানে। দীর্ঘদিন ধরে ত্বক ও চুলের যত্নে রাইস ওয়াটার ব্যবহার করা হয়। রাইস ওয়াটার বা চাল ধোয়া জলে যে উপকরণ আছে, তা চুল ও ত্বকের জন্য খুব ভাল। প্রাকৃতিক ক্লিনজ়ার, টোনার হিসেবে ব্যবহার করা হয়। একই সঙ্গে ত্বক আর্দ্র রাখে। ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে রাইস ওয়াটার। তবে ত্বকের জন্য কীভাবে ব্যবহার করবেন রাইস ওয়াটার(rice water for skin), তা বলে দিচ্ছি আমরাই। 

কীভাবে রাইস ওয়াটার তৈরি করবেন

এক কাপ চাল নিন। চাল ধুয়ে নিন। তার সঙ্গে চার কাপ জল মিশিয়ে নিন। ৩০ মিনিট ওভাবেই রেখে দিন। তারপর চাল টিপে দেখুন যে,সেটা নরম হয়েছে কি না। আরও ১০ মিনিট রেখে চাল থেকে জল ছেঁকে নিন। সেই জলটি (rice water for skin)আলাদা করে রাখুন। একটি কন্টেনারে নিয়ে ফ্রিজ়েও রেখে দিতে পারেন। অন্তত ৫দিন ফ্রিজ়ে রাখুন।

কী কী ভাবে আপনি রাইস ওয়াটার ব্যবহার করতে পারেন

  • ক্লিনজ়িং টোনার হিসেবে
  • চুলের যত্নে
  • স্ক্রাবার হিসেবে

এক কাপ চাল ভিজিয়ে রাখুন…

ক্লিনজ়িং টোনার হিসেবে ব্যবহার করুন

আপনি ফ্রিজ়ে যে রাইস ওয়াটার বা ভাতের ফ্যান রেখেছেন, সেটি তুলোয় সামান্য পরিমাণে নিন। তুলোটি ভিজিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। ক্লক ওয়াইস লাগাবেন। এরপর আপনি মুখ শুকিয়ে নিন। মুখের ত্বক শুকিয়ে গেলে ময়শ্চারাইজ়ার লাগিয়ে নিন। ত্বকের যত্নে রাইস ওয়াটারের (rice water for skin)জুড়ি মেলে না।

চুলের যত্নে ব্যবহার করুন রাইস ওয়াটার

এক কাপ রাইস ওয়াটারের মধ্যে মিশিয়ে নিন ছয় ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল। শ্যাম্পু করার পর চুল ধুয়ে নিন। এরপর সেই মিশ্রণটি স্ক্যাল্পে ঢেলে দিন। একইসঙ্গে চুলেও মেখে নিন ভাল করে। স্ক্যাল্প ভাল ভাবে মাসাজ করুন। ৫ মিনিট ওভাবেই অপেক্ষা করুন। তারপর জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। আপনি এরপরে চুলে কন্ডিশনারও লাগিয়ে নিতে পারেন। আপনার চুল ভাল থাকবে। চুলের যত্নে রাইস ওয়াটার খুবই উপকারী।

 

তৈরি করুন নিজের স্ক্রাব

আধ কাপ রাইস ওয়াটার বা চাল ধোয়া জল (rice water for skin)নিন। তার সঙ্গে চার টেবিল চামচ সি সল্ট বা সামুদ্রিক লবণ মিশিয়ে নিন। এর মধ্যেই মেশান ছয় ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল ও দুই টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। আপনার ত্বক এক্সফোলিয়েট করার জন্য শরীরে এই মিশ্রণটি লাগিয়ে ভালভাবে ঘষে নিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। ধুয়ে ফেলার পর ময়শ্চারাইজ়ার লাগিয়ে নিন। আপনার ত্বক যদি স্পর্শকাতর হয়, তবে প্রথমেই ত্বকের সামান্য অংশে লাগিয়ে পরীক্ষা করে নেবেন।

চুলের যত্নে চাল ধোয়া জল বা রাইস ওয়াটারের ব্যবহার দীর্ঘদিন ধরে হচ্ছে। অনেকে ছোটবেলাতে চুলের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য এই পদ্ধতি ব্যবহারও করেছেন। এখন আবার আপনার ত্বকে রাইস ওয়াটার এবং চুলে রাইস ওয়াটার ব্যবহার করে দেখুন এইভাবে। আপনার ত্বক ও চুল ভাল থাকবে। স্নানের জলে চাল ধোয়া জল বা রাইস ওয়াটার মিশিয়ে স্নান করলে ত্বকের মধ্যে অস্বস্তিকর জ্বালা, চুলকানি থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়।

মূল ছবি সৌজন্য : পেক্সেল

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!
বাড়িতে
থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

11 Dec 2020

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text