Advertisement

বাড়ির সাজসজ্জা

এ বার বাড়িতেই শুরু করুন হার্ব গার্ডেনিং (herb gardening)

Upasana SarkarUpasana Sarkar  |  Mar 19, 2019
এ বার বাড়িতেই শুরু করুন হার্ব গার্ডেনিং (herb gardening)

Advertisement

সুন্দর করে ফ্ল্যাটটা সাজিয়েছে শ্রীময়ী। একটা সুন্দর ছোট্ট বাগান (garden) সাজাতে চায় ও। কিন্তু জায়গার অভাবে তো আর সেটা সম্ভব হয় না! তাই নিজের প্রথম বাড়িটা খুব মিস করে ও। বিশাল বড় দালান বাড়ি, সামনে সাজানো সুন্দর বাগান। আর সেই বাগানে (garden) কোন গাছ ছিল না! আর সবটাই নিজের হাতে করা। তাই নতুন ফ্ল্যাটে উঠে এসে সাধের বাগানটাকে (garden) খুব মিস করছে ও। এমনকি ডিপ্রেশনেও চলে গিয়েছিল ও। পরে অনেক জায়গা ঘেঁটে বার করে জানতে পারে- হার্ব গার্ডেনিংয়ের (herb gardening) কথা! এখন তো বাড়ির হার্ব গার্ডেনিংয়ের (herb gardening) মাধ্যমে ব্যালকনিটা খুব সুন্দর করে সাজিয়ে নিয়েছে। আর শুধু সাজানো তো নয়, এখন তো ওর বাগানের (garden) জিনিসপত্র দিয়েই রান্নাবান্নাটাও (cooking) বেশ হয়ে যায়।

আজকাল সব নিউক্লিয়ার ফ্যামিলি। আর বেশির ভাগই ফ্ল্যাট। ফলে জায়গার অভাবে বাগান (garden) করার ইচ্ছে থাকলেও উপায় থাকে না। ব্যালকনিতে অনেকে কিছু ফুলের গাছ লাগিয়ে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটান। তবে আর একটা দারুণ রাস্তা আছে- হার্ব গার্ডেনিং (herb gardening)। এতে আপনার সুখী গৃহকোণে সবুজের ছোঁয়া তো থাকবেই, সঙ্গে আপনার বাগান (garden) করার সাধও পূরণ হবে। আর এর একটা মজার দিকও রয়েছে। আপনার রান্নায়ও (cooking) কাজে লাগবে। ফ্রেশ হার্বস (herbs) রান্নায় পড়লে রান্নার (cooking) স্বাদ বাড়বে বই কমবে না! জেনে নিন, হার্ব গার্ডেনিংয়ের (herb gardening) বিষয়ে।

আরও পড়ুনঃ থানকুনি পাতার উপকারিতা ও ক্ষতি

কী ভাবে করবেন হার্ব গার্ডেনিং

herb garden

আদা

রান্নাবান্নায় (cooking) আদা তো লাগেই। আর হার্বাল চায়েও আদার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরুন, মাথাব্যথা করছে অথবা সর্দি-সর্দি লাগছে। একটু আদা দিয়ে চা খেয়ে নিন। ব্যস! সব সমস্যা নিমেষে গায়েব। আর বাড়িতেই যদি আদা ফলিয়ে নিতে পারেন, তা হলে তো কোনও কথাই নেই! আসলে আদা ফলানো খুবই সহজ। এক বার আদা হলে নিয়মিত সরবরাহ পাওয়া যাবে। একটি আদার শিকড়কে আলাদা করে মাটি ভরা পাত্রে বুনে দিন। তবে খেয়াল রাখতে হবে, যে আদার কুঁড়ি যেন মাটির উপরে থাকে। এক সপ্তাহের মধ্যেই নতুন কাণ্ড ও শিকড় গজাবে, যা থেকে আবার শিকড় নিয়ে বেশ কয়েকটি আদা গাছ লাগিয়ে ফেলতে পারবেন পাশাপাশি।

রসুন

মাংস রান্নায় (cooking) রসুনের ভূমিকা কেমন, তা তো সকলেরই জানা। অথবা রসুন বাটা কেমন লাগে! আর সেই রসুন যদি বাড়িতে ফলানো হয়, তা হলে কেমন হবে? রসুনের একটি মাত্র কোয়া থেকে নতুন রসুন গাছ পাওয়া যায়। রসুনের একটি শিকড়-সহ কোয়া নিয়ে তাকে উল্টো করে মাটিতে রোপণ করে দিন। মনে রাখতে হবে যে রসুন গাছ হওয়ার জন্য প্রচুর সূর্যের আলোর প্রয়োজন। নতুন কাণ্ড আসা শুরু হওয়ার পর একটি কাণ্ডের মাথা কেটে দিলে সেখান থেকে রসুন হবে। এ ভাবে এই রসুনের আর একটি কোয়া নিয়ে পাশাপাশি বেশ কয়েকটি চারা বুনে দিতে পারেন।

পুদিনা পাতা

mint-herb

গরমকাল আসছে। বরফ কুচি দিয়ে পাতিলেবু ও পুদিনার সরবত তো জমে যাবে। আবার বর্ষায় অথবা শীতে সান্ধ্য জলখাবারে পকোড়ার সঙ্গে পুদিনার চাটনিও তো দারুণ। পুদিনা অন্য অনেক গাছের চেয়ে সহজেই ফলে এবং এক চারা থেকেই এর বংশবৃদ্ধি ঘটে। পুদিনা চারা কিনে পোঁতার সময় নীচের দিকের পাতাগুলো ছাড়িয়ে নিন। লক্ষ্য রাখবেন, পুদিনা গাছ পোঁতার জন্য শুধু দরকার চার ইঞ্চি লম্বা একটি পুদিনা গাছের মূল। পাতা কাঁচি দিয়ে কাটবেন। রোজ জল দিতে ভুলবেন না। হালকা আলো আছে এমন জায়গায় রাখুন। সরাসরি রোদ এ গাছের জন্য ক্ষতিকর।

আরও পড়ুনঃ পিপারমিন্ট তেলের উপকারিতা

ধনেপাতা

coriander
ধনেপাতার মূলের নিচের অংশটুকু এক গ্লাস জলে ডুবিয়ে জানলার পাশে একটি রেখে দিন। যেখানে ভাল সূর্যের আলো পৌঁছয়। শিকড় থেকে যখন কয়েক ইঞ্চি বড় হবে, তখন গাছটিকে সাবধানে মাটির পাত্রে স্থানান্তর করুন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই গাছে নতুন ধনেপাতা দেখবেন।

পার্সলে

parsley
খুব চেনা হার্ব (herbs)। অনেকেই এর স্বাদ ও গন্ধ পছন্দ করেন। এই গাছ বসন্তের মাঝামাঝি লাগান। আর্দ্রতা খুব প্রয়োজনীয়। মাটি যেন কখনওই শুকিয়ে না যায়। কড়া রোদ থাকাকালীন বাইরে বীজ লাগান। এই গাছের চারা খুব আস্তে আস্তে বের হয়। তাই মোটামুটি ছয় সপ্তাহ পরে চারা তৈরি হবে। তার পর সেগুলো তুলে টবের মাঝখানে লাগিয়ে দিন। এর পর আংশিক ছায়া দেখে টবগুলো রেখে দিন।

কারিপাতা

খাবারে অথবা ডালে স্বাদ-গন্ধ আনতে কারিপাতা ব্যবহার করা হয়। তো সেই কারিপাতা যদি আপনার বাড়ির বাগানে (garden) থাকে, তা হলে কত্ত সুবিধা হয়! টবের গাছ যেন বেশি বড় না হয়। কয়েক মাস অন্তর একটু করে ছেঁটে দিলে গাছ ভালো থাকে। গরমকালই এই গাছ লাগানোর জন্য আদর্শ। ছোট চারা লাগাতে পারেন। অথবা বড় গাছ থেকে ডাল কেটে পাতা ছাড়িয়ে গোড়ার দিকটা একটু চেঁছে নিয়ে লাগান। প্রতিদিন জল দিন। রোদ আসে এমন জায়গায় রাখবেন।

অরেগ্যানো

oregano

পিৎজাপ্রেমীদের কাছে তো খুবই প্রিয় এই হার্ব (herbs)। অনেক সময় স্যান্ডউইচ অথবা নুডলসেও অরেগ্যানো দিলে স্বাদ বাড়ে। আর এই গাছ বাড়ার জন্য রোদ খুব প্রয়োজন। বেশি জল গাছের মূল নষ্ট করে দেয়। দশ সপ্তাহ পর অল্প করে সার দিতে হবে। গাছ আট ইঞ্চি লম্বা হলে কাটার জন্য তৈরি হয়। এই সময় উপরের দিকে কেটে শুকিয়ে ব্যবহার করুন।

ছবি সৌজন্যে: পিক্সঅ্যাবে

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!