লাইফস্টাইল

দাঁতের ব্যথা (Toothache) কমাতে এই ঘরোয়া টোটকাগুলো ব্যবহার করে দেখুন

Upasana SarkarUpasana Sarkar  |  Apr 12, 2019
দাঁতের ব্যথা (Toothache) কমাতে এই ঘরোয়া টোটকাগুলো ব্যবহার করে দেখুন

এক বার ভাবুন তো, হাজারো কাজের মাঝে আচমকাই দাঁতে (Tooth) মারাত্মক যন্ত্রণা (Pain) শুরু হল! তখন কী করবেন! ভাবছেন, ডেন্টিস্টের কাছে যাবেন না আর দু’টো দিন দেখবেন! কিন্তু এই কনফিউশনের জন্য তো আর আপনার দাঁতের ব্যথা (Toothache) থেমে থাকবে না! তাই ডেন্টিস্টের (Dentist) কাছে না যাওয়া পর্যন্ত কয়েকটা ঘরোয়া টোটকায় (Home remedy) কিন্তু দাঁতের ব্যথা (Toothache) প্রশমিত করে রাখতে পারবেন। তবে মনে রাখবেন, দাঁতের ব্যথা কিন্তু এমনি এমনিই হয় না। নিশ্চয়ই কোনও ইনফেকশন অথবা মাড়িতে সমস্যার থেকে হয়। তাই ডেন্টিস্টের (Dentist) কাছে যাওয়াটা কিন্তু মাস্ট। তাই যত ক্ষণ না ডাক্তারের কাছে যাচ্ছেন, তত ক্ষণ ব্যথাটা (Pain) কমিয়ে রাখতে হবে তো!

আরও পড়ুনঃ দাঁতের হলদে ছোপ দূর করার ঘরোয়া উপায়

নুন-জল

ঘরোয়া এই টোটকা (Home remedy) একেবারে সাধারণ এবং প্রচলিত এই প্রক্রিয়া আসলেই কার্যকর। এক গ্লাস গরম জলে বেশি করে নুন গুলে নিয়ে কুলকুচি করুন যত ক্ষণ সম্ভব। যদি কোনও জীবাণুর কারণে দাঁতে (Tooth) ব্যথা হয়, সে ক্ষেত্রে নুন-জলে ব্যথা দূর হবে। এ ছাড়াও মাড়িতে রক্ত চলাচল ভালো করে দেয় এবং সাময়িক ভাবে দাঁত ব্যথা (Toothache) কমে আসে। তবে এই নুন জল খেয়ে ফেলবেন না যেন! কুলকুচি করে ফেলে দেবেন।

নুন-গোলমরিচ

গোলমরিচের মধ্যে নুন মিশিয়ে ব্যবহার করলে ব্যথা (Pain) কমে অনেকটাই। এই দু’টির মধ্যে আছে ব্যাকটেরিয়ারোধী, প্রদাহরোধী ও অ্যানালজেসিক উপাদান। সমপরিমাণ গোলমরিচ ও নুন নিন। এর মধ্যে কয়েক ফোঁটা জল দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। আক্রান্ত দাঁতে সরাসরি ওই পেস্টটি লাগান এবং কয়েক মিনিট রাখুন। দেখবেন, আরাম হচ্ছে

রসুন

garlics

দাঁতের ব্যথা (Toothache) কমাতে রসুন একটি ভাল উপাদান। রসুনের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল উপাদান, আর আছে এমন উপাদান, যেটি ব্যথা কমাতে কার্যকর। রসুনের গুঁড়ো নিন অথবা কয়েকটি রসুনের কোয়া থেঁতলে নিন। এর মধ্যে সামান্য পরিমাণ নুন মেশান। আক্রান্ত দাঁতে (Tooth) সরাসরি মিশ্রণটি লাগান। এতে ব্যথা কমবে। পাশাপাশি কয়েকটি রসুনের কোয়া চিবাতে পারেন।

লবঙ্গ

cloves

যে দাঁতটা ব্যথা (Pain) করছে, তার ওপরে বা পাশে একটা লবঙ্গ রেখে দিন। মাড়ি আর দাঁতের মাঝে বা দুই চোয়ালের মাঝে এই লবঙ্গ চেপে রাখতে পারেন, যত ক্ষণ না ব্যথা চলে যায়। লবঙ্গের তেল ব্যবহার করতে পারেন তবে দুই-এক ফোঁটার বেশি নয়। লবঙ্গ তেল ব্যথার জায়গায় ঘষে নিতে পারেন অথবা তেলে একটা তুলোর বল ভিজিয়ে নিয়ে দাঁতে ব্যথার জায়গাটায় লাগাতে পারেন।

হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড

ব্যথা (Pain) ও ইনফ্ল্যামেশন কমাতে হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড দারুণ। এমনকি মাড়ি থেকে রক্ত পড়াও কমিয়ে দেয়। ৩% হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড আর সমপরিমাণ জল নিন। তবে দেখবেন, হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড যেন জলে পুরোপুরি গুলে মিশে যায়। এটাকে মাউথওয়াশ হিসেবে ব্যবহার করুন। তবে গিলে ফেলবেন না কিন্তু!

কোল্ড কমপ্রেস

ব্যথা কমানোর জন্য আইস প্যাক অথবা কোল্ড কমপ্রেস ব্যবহার করেই থাকেন। এ বার জেনে নিন, দাঁতের ব্যথা কমাতেও কাজে লাগে কোল্ড কমপ্রেস। মাড়ি ফোলা অথবা ইনফ্ল্যামেশন কমাতে সাহায্য করে এই কোল্ড কমপ্রেস। একটা তোয়ালে জড়ানো আইস ব্যাগ আপনার ক্ষতিগ্রস্ত জায়গায়টায় মিনিট কুড়ি ধরে রাখুন। এতে ব্যথা কমে যাবে। কয়েক ঘণ্টা অন্তর এটা করলে ব্যথা কমিয়ে রাখা যাবে।

পিপারমিন্ট টি-ব্যাগ

দাঁতে ব্যথা (Toothache) কমানোর খুব ভাল দাওয়াই হল পিপারমিন্ট টি-ব্যাগ। ধরুন, পিপারমিন্ট টি-ব্যাগটা দিয়ে চা বানিয়েছেন। এই অবস্থায় টি-ব্যাগটা একটু ঠান্ডা করে নিন। এই অবস্থায় ওই টি-ব্যাগটার সেঁক দিলে দাঁতের ব্যথা অনেকটাই উপশম হবে।

পেয়ারা পাতা

guava leaves

পেয়ারা পাতা তো দাঁতের (Tooth) জন্য খুবই ভাল। দাঁতে ব্যথা হলে পেয়ারা পাতা চিবিয়ে নিতে পারেন। অথবা কয়েকটা পেয়ারা পাতা থেঁতো করে ফুটন্ত জলে ফেলে দিন। সেটাকে মাউথওয়াশ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। কারণ পেয়ারা পাতায় রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান যা ক্ষত সারিয়ে তুলতে পারে। আর এটা অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল। যেটা ওরাল কেয়ারে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ছবি সৌজন্যে: ইউটিউব, পিক্সঅ্যাবে

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!