Self Help

শরীরে জলের ঘাটতি হলে বিপদ! কিন্তু আপনি যে কম পরিমাণে জল খাচ্ছেন, তা বুঝবেন কীভাবে?

popadminpopadmin  |  Dec 6, 2019
শরীরে জলের ঘাটতি হলে বিপদ! কিন্তু আপনি যে কম পরিমাণে জল খাচ্ছেন, তা বুঝবেন কীভাবে?

আমাদের শরীরের কম-বেশি প্রায় ষাট শতাংশই জলের দখলে। শুধু তাই নয়, শরীরকে সচল রাখতে ঘটে চলা প্রতিটি কাজই জল ছাড়া সম্ভব নয়। তাই বুঝতেই পারছেন, শরীর পর্যাপ্ত পরিমাণ জল না পেলে মহা বিপদ! এদিকে কখনও ঘামের কারণে, তো কখনও প্রস্রাব বা অন্য কোনও কারণে শরীর থেকে প্রতিনিয়ত জল বেরিয়ে যাচ্ছে। ফলে দিনের মধ্যে নানা সময় জলের ঘাটতি দেখা দিচ্ছে। সেই ঘাটতি ঠিক সময় পূরণ করাটা জরুরি। না হলে যে নানা সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে, তাতে কোনও সন্দেহ নেই! সেই কারণেই তো দিনে লিটারচারেক জল খাওয়া মাস্ট! যদি প্রশ্ন করেন, এর চেয়ে কম পরিমাণে জল খেলে কী হবে? তা হলে জেনে রাখা ভাল যে, শরীরে জলের ঘাটতি (Dehydrated) দেখা দিলে গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক প্রক্রিয়াগুলি বিঘ্নিত হবে। এমনকী, হার্টের উপরও মারাত্মক চাপ পড়বে, যে কারণে irregular heart rate-এর মতো সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা বাড়বে। সঙ্গে রক্তচাপ কমে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটলেও অবাক হওয়ার নয়! তাই তো ডিহাইড্রেশনের খপ্পরে পড়া মোটেই চলবে না। কিন্তু প্রশ্ন হল, শরীরে যে জলের ঘটতি হয়েছে, তা কি আদৌ বোঝা সম্ভব? আলবাত সম্ভব! কারণ, সেক্ষেত্রে বেশ কিছু লক্ষণ প্রকাশ পাবে। যেমন ধরুন…

আরও পড়ুনঃ প্রতিটি মহিলার জন্য প্রয়োজনীয় মেডিক্যাল টেস্ট

১. মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হবে

pixabay

শরীরে (health) জলের ঘাটতি দেখা দেওয়া মাত্র মুখগহ্বর এবং জিভ শুকোতে শুরু করে, সঙ্গে স্যালাইভার উৎপাদন কমে যাওয়ার কারণে স্বাভাবিক ভাবেই ব্যাকটেরিয়ার প্রকোপ বাড়তে থাকে। ফলে মুখ থেকে দুর্গন্ধ বেরোয়। তাই এবার থেকে এই লক্ষণগুলি নজরে এলেই গ্লাস দুয়েক জল খেয়ে নেবেন। দেখবেন, সঙ্গে-সঙ্গে স্বস্তি মিলবে।

২. প্রস্রাবের রং বদলে যাবে

দিনে যে পরিমাণ জল খাওয়া উচিত, তার থেকে কম পরিমাণ খেলেই প্রস্রাবের রং বদলে যায়। এমন পরিস্থিতিতে বারে-বারে গাঢ় হলুদ রঙের প্রস্রাব হবে। সঙ্গে প্রস্রাবের সময় খুব জ্বালাও করবে। তখন মিনিটকুড়ি বাদ-বাদেই এক গ্লাস করে জল খেতে ভুলবেন না যেন! যতক্ষণ না ইউরিনের রং স্বাভাবিক হচ্ছে, ততক্ষণ এই নিয়ম মেনে জল খেয়ে যেতে হবে, না হলে কিন্তু ডিহাইড্রেশনের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কা বাড়বে। সঙ্গে লেজুড় হতে পারে আরও নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা। তাই এমন সব লক্ষণকে উপেক্ষা করা বুদ্ধিমানের কাজ নয়।

৩. মাথা যন্ত্রণা

pixabay

এক্কেবারে ঠিক শুনেছেন! ডিহাইড্রেশনের সঙ্গে মাথা যন্ত্রণার সরাসরি যোগ রয়েছে। শুনলে অবাক হবেন, শরীরে কয়েক শতাংশ জলের ঘাটতি হলেই মাথা যন্ত্রণা ঘাড়ে চেপে বসার আশঙ্কা থাকে। যতক্ষণ না সেই ঘাটতি মিটছে, ততক্ষণ মাথা যন্ত্রণাও পিছু ছাড়তে চায় না। আসলে শরীরে জলের ঘাটতি হলেই রক্তচাপ কমতে শুরু করে, যে কারণে মাথা যন্ত্রণার মতো সমস্যা লেজুড় হয়। তাই এবার থেকে যখনই লক্ষ করবেন কোনও কারণ ছাড়াই হলকা মাথা যন্ত্রণা হয়েই চলেছে, তখন ঝটপট কয়েক গ্লাস জল খেয়ে নিন!

৪. হার্ট রেট বেড়ে যাবে

আজকাল অল্পতেই কি হাঁপিয়ে পড়েন? সঙ্গে লেজুড় হয় অল্পবিস্তর শ্বাসকষ্টও? তাহলে এই নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই যে আপনি দিনে তিন লিটারের কম জল খাচ্ছেন। কারণ, শরীরে জলের ঘাটতি দেখা দিলেই এমন ঘঠনা ঘটে। কারণ, জলের চাহিদা পূরণ না হলেই blood volume কমতে থাকে। ফলে হার্টকে স্বাভাবিকের থেকে দ্রুত কাজ করতে হয়, যে কারণে হার্ট রেট তো বাড়েই, সঙ্গে শ্বাসকষ্টের মতো সমস্যাও মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শরীর পর্যাপ্ত জল না পেলে ব্রেন ফাংশনও ঠিক মতো হয় না। কারণ, মানব মস্তিষ্কের সত্তর শতাংশই জলে পরিপূর্ণ। তাই তো দেহে জলের ঘাটতি হলে ব্রেণের ক্ষমতা কমতে থাকে, যে কারণে মনোযোগ ক্ষমতা কমে যায়। তাই বুঝতেই পারছেন প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে জল খাওয়াটা কতটা জরুরি।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়…