Advertisement

রূপচর্চা ও বিউটি টিপস

কীভাবে ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন, রইল ত্বকের ধরন অনুযায়ী সেরা প্রোডাক্টের লিস্ট

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Oct 22, 2019
কীভাবে ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন, রইল ত্বকের ধরন অনুযায়ী সেরা প্রোডাক্টের লিস্ট

Advertisement

মেকআপ ভাল করার প্রাথমিক শর্তের মধ্যে অন্যতম হল সঠিক ফাউন্ডেশনের ব্যবহার। আপনি কেমন ফাউন্ডেশন ব্যবহার করছেন এবং কীভাবে ত্বকে অ্যাপ্লাই করছেন, তার ওপর মেকআপের অনেক কিছু নির্ভর করে। আপনার ত্বকের জন্য কোন ফাউন্ডেশন জরুরি, তা কেনার আগে কী কী দেখে নেবেন, কীভাবেই বা অ্যাপ্লাই করবেন, সে সব সাধারণ কিছু বিষয় নিয়ে আমরা এই প্রতিবেদন আলোচনা করার চেষ্টা করব। হয়তো আপনার মেকআপ শিডিউলে আলাদা মাত্রা যোগ করতে পারে এই আলোচনা। ফাউন্ডেশন ব্যবহারের আগে আপনার ত্বকের ধরন জেনে নেওয়া জরুরি। নিজে না বুঝতে পারলে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। বাজারে বিভিন্ন প্রোডাক্ট রয়েছে। কিন্তু আপনার জন্য উপযুক্ত কোনটা সেইটা বেছে নিতে হবে। অনেক দাম দিয়ে হয়তো এমন একটা প্রোডাক্ট কিনলেন, যেটা আপনার ত্বকের জন্য মানানসই নয়। তাই শপিংয়ের আগে গাইডেন্স জরুরি। আমরা আপনাদের পাশে থাকার চেষ্টা করলাম মাত্র। কিছু সাজেশন সাজিয়ে দিলাম। ফাইনাল ডিসিশন আপনারই। এর থেকে আপনি উপকার পেলে সবচেয়ে ভাল লাগবে আমাদের। আপনার মেকআপ গাইডেন্স শেয়ারও করতে পারেন আমাদের সঙ্গে। 

সঠিক মেকআপের জন্য কেন ফাউন্ডেশন জরুরি? (What’s The Purpose Of Makeup Foundation?)

লিকুইড হোক বা পাউডার যে কোনও ফর্মে ফাউন্ডেশন (foundation) ব্যবহার করাটা মেকআপের ক্ষেত্রে খুবই প্রয়োজন। আপনার কমপ্লেকশনকে আরও ব্রাইট করে তুলবে ফাউন্ডেশন। কখনও ন্যাচারাল স্কিন টোন বদলে দেওয়ার প্রয়োজনে কাজে লাগে। ত্বকে ব্রণ বা মেচেতার মতো দাগ বা ব্ল্যাক হেডস থাকলে তাও ঢাকা পড়ে সহজেই। কখনও কখনও ফাউন্ডেশনই সানস্ক্রিন বা ময়শ্চারাইজারের কাজ করে। মেকআপের আগে বেস লেয়ার তৈরি করার জন্য অত্যন্ত জরুরি ফাউন্ডেশন। তবে অবশ্যই ভাল ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন। ত্বকের ক্ষতি করে মেকআপ করলে পরে তার ফল ভুগতে হবে। 

শুষ্ক ত্বকের উপযোগী পাঁচটি ফাউন্ডেশন (5 Best Foundations For Dry Skin)

আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয়, তাহলে কোন কোন ফাউন্ডেশন দিয়ে মেকআপ করতে পারেন, তা একনজরে দেখে নিন। ত্বকের উপযুক্ত ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করলে বিভিন্ন রকমের দাগ হয়ে যেতে পারে। 

১| ল্যাকমে ফেস ম্যাজিক (Lakme Face Magic Souffle)

ভিটামিন ই সমৃদ্ধ এই ফাউন্ডেশন ত্বকের ডার্ক সার্কল দূর করবে। ত্বককে উজ্জ্বল করবে। ফ্ললেস ত্বক পেতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। 

২| ল্যাকমে অ্যাবসল্যুট অরগান অয়েল সিরাম ফাউন্ডেশন (Lakme Absolute Argan Oil Serum Foundation With SPF 45)

এই সেরাম ফাউন্ডেশনটি ত্বককে ভিতর থেকে সুস্থ রাখবে। সিল্কি টেক্সচার পাবেন আপনি। সহজে ত্বকে মিশে যাবে। ত্বকে ময়শ্চারাইজারেরও কাজ করবে। 

৩| এস অফ ফেস ফাউন্ডেশন স্টিক (Ace Of Face Foundation Stick)

ক্রিম বেসড এই ফাউন্ডেশন মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী করতে সাহায্য করে। রোমকূপের মুখ পরিষ্কার করে এবং ডার্ক সার্কেল দূর করে।

৪| কিকো মিলানো স্মার্ট হাইড্রেটিং ফাউন্ডেশন (Kiko Milano Smart Hydrating Foundation)

ময়শ্চারাইজার বেসড এই ফাউন্ডেশন ত্বকের রঙ পরিবর্তন করতে সাহায্য করে। 

৫| স্ম্যাশবক্স স্টুডিও স্কিন হাইড্রেটিং ফাউন্ডেশন (Smashbox Studio Skin 24 Hour Wear Hydrating Foundation)

এই ফাউন্ডেশনের প্রায় ৪০ টি শেড আপনি বাজারে কিনতে পারবেন। আন্ডারটোন করার জন্য আদর্শ।

কীভাবে ব্যবহার করবেন (How To Apply Foundation On Dry Skin)

ফাউন্ডেশন কীভাবে ব্যবহার করবেন, সেটা জেনে নেওয়া জরুরি। ব্যবহার করতে না জানলে আপনার মেকআপ প্রপার হবে না।

১| ত্বকের মরা কোষ তুলে ফেলা জরুরি। নাক এবং চিবুকে সহজে ময়লা হয়ে যায়। সেখান থেকে ব্ল্যাক হেডস তুলে ফেলুন প্রতি রাতে। এতে ফাউন্ডেশন বসাতে সুবিঝে হবে।

২| ফাউন্ডেশন ত্বকে লাগানোর আগে ত্বককে আর্দ্র করে রাখা জরুরি।

৩| ফাউন্ডেশন অনেক সময় ময়শ্চারাইজারের কাজ করে। ফলে আপনার ত্বকের জন্য সেই ধরনের ফাউন্ডেশন প্রয়োজন কিনা, সেটা দেখে নিন।

৪| লোশন কেনার আগে সতর্ক থাকুন। পেট্রোলিয়াম বেসড প্রোডাক্ট হলে ত্বকে মিশে যেতে বেশি সময় লাগবে, সেটা মনে রাখবেন।

৫| ওয়াটারপ্রুফ বা অয়েল কন্ট্রোল ফাউন্ডেশন লাগাতে চাইলে তা অ্যাপ্লাই করার সঙ্গে সঙ্গে ত্বককে আরও শুষ্ক করে ফেলে। 

৬| এই সমস্যা মেটাতে অ্যাকোয়া ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে পারেন।

৭| আপনার যেহেতু শুষ্ক ত্বক সে কারণে ক্রিম বেস ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। ন্যাচারাল ফিনিশ লুক পাবেন।

৮| শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে ফাউন্ডেশনের পর পাউডার ব্যবহার না করাই ভাল। এতে ত্বক আরও শুষ্ক দেখায়।

৯| ফাউন্ডেশন হোক বা কনসিলার হাত দিয়ে লাগানো কঠিন। কারণ ত্বক শুষ্ক হওয়ার কারণে যে কোনও প্রোডাক্ট আপনার ত্বক খুব সহজে টেনে নেয়।

১০| শুষ্ক ত্বকে মেকআপ বসানো কঠিন। তাই ফাউন্ডেশন লাগানোর জন্য স্পঞ্জ বা ব্রাশ ব্যবহার করুন।

তৈলাক্ত ত্বকের উপযোগী পাঁচটি ফাউন্ডেশন (5 Best Foundations For Oily Skin)

আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয়, তাহলে কোন কোন ফাউন্ডেশন দিয়ে মেকআপ করতে পারেন, তা একনজরে দেখে নিন। ত্বকের উপযুক্ত ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করলে বিভিন্ন রকমের দাগ হয়ে যেতে পারে।

১| ল্যাকমে পারফেক্টিং লিকুইড ফাউন্ডেশন (Lakme Perfecting Liquid Foundation, Coral)

ভিটামিন ই এবং সিলিকন সমৃদ্ধ এই ফাউন্ডেশনে অয়েল ফ্রি ফর্মুলা রয়েছে। যা তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আদর্শ।

২| ল্যাকমে ইনভিজিবল ফিনিশ ফাউন্ডেশন (Lakme Invisible Finish SPF 8 Foundation, Shade 04)

এটি ইনভিজিবল ফিনিশ ফাউন্ডেশন। অর্থাৎ ফাউন্ডেশন যে লাগানো হয়েছে, তা দেখে বোঝার কোনও উপায় থাকে না। সূর্যের বিভিন্ন ক্ষতিকর রশ্মি থেকেও ত্বককে রক্ষা করে।

৩| কালার এসেন্স অ্যাকোয়া মেকআপ বেস ফাউন্ডেশন (Coloressence Aqua Makeup Base Foundation, Beige)

ইউভি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে এই ফাউন্ডেশন। চিবুক, গলাতেও নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারবেন। 

৪| মেবেলিন নিউ ইয়র্ক ফিট মি ম্যাট + পোরলেস লিকুইড ফাউন্ডেশন টিউব (Maybelline New York Fit Me Matte+Poreless Liquid Foundation)

ভারতীয় ত্বকের জন্য এই ফাউন্ডেশন আদর্শ। মোট ছয়টি কালার টোনে কিনেত পাওয়া যায়। এটি লাগালে ম্যাট ফিনিশ লুক পাওয়া যায় অনায়াসে। 

৫| লোরিয়েল ট্রু ম্যাচ লিকুইড ফাউন্ডেশন (LOREAL Womens True Match Liquid Foundation)

ভিটামিন বি এবং ই সমৃদ্ধ এই ফাউন্ডেশন ত্বকের ফর্সা ভাব বজায় রাখে। ত্বককে আরও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। 

কীভাবে ব্যবহার করবেন (How To Apply Foundation On Oily Skin)

ফাউন্ডেশন কীভাবে ব্যবহার করবেন, সেটা জেনে নেওয়া জরুরি। ব্যবহার করতে না জানলে আপনার মেকআপ প্রপার হবে না।

১| ত্বক তৈলাক্ত হলেও ফাউন্ডেশন লাগানোর আগে ত্বকের ময়শ্চারাইজার দেওয়া জরুরি।

২| হাতের পাতার উল্টোপিঠে ফাউন্ডেশন নিন কয়েক ফোঁটা।

৩| ফাউন্ডেশন লাগানোর ব্রাশ বা স্পঞ্জ বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। তা যেন আগে থেকেই আপনার সংগ্রহে থাকে।

৪| ব্রাশের গায়ে ওই কয়েক ফোঁটা ফাউন্ডেশন লাগিয়ে নিন ভাল করে।

৫| সারা মুখে থুপে থুপে লাগিয়ে নিন ফাউন্ডেশন।

৬| মুখের ধার, চিবুক এবং নাকের দুপাশে আলাদা করে নজর দেবেন।

৭| চোখের তলার কালো দাগ ঢাকতে ভাল করে ওই ব্রাশ বুলিয়ে নিন।

৮| মেকআপের সামঞ্জস্য বজায় রাখতে গলায় ওই একই ফাউন্ডেশন লাগাতে ভুলবেন না। 

৯| হাত বা পিঠেও অ্যাপ্লাই করতে পারেন। আসলে কেমন পোশাক পরছেন, তার ওপর নির্ভর করে ত্বকের ঠিক কোথায় কোথায় মেকআপের প্রয়োজন।

১০| ত্বকের যে সব জায়গায় ফাউন্ডেশন লাগাবেন, তা যাতে মিশে যায় সেটা নিশ্চিত করা জরুরি।

সাধারণ ত্বকের উপযোগী পাঁচটি ফাউন্ডেশন (5 Best Foundations For Normal Skin)

আপনার ত্বক যদি সাধারণ হয়, তাহলে কোন কোন ফাউন্ডেশন দিয়ে মেকআপ করতে পারেন, তা একনজরে দেখে নিন। ত্বকের উপযুক্ত ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করলে বিভিন্ন রকমের দাগ হয়ে যেতে পারে।

১| ল’রিয়াল প্যারিস লিকুইড ফাউন্ডেশন (L’Oreal Paris Infallible 24Hr Liquid Foundation, Golden Beige)

ত্বকে ব্রণর সমস্যা দূর করে এই ফাউন্ডেশন। মেকআপ ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত স্থায়ী রাখতে সাহায্য করে।

২| ম্যাক স্টুডিও ওয়াটারওয়েট ফাউন্ডেশন (MAC Studio Waterweight SPF 30 Foundation)

এই ফাউন্ডেশনের এসপিএফ ৩০। সূর্যের ইউভিএ এবং ইউভিবি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে। এটি লাগিয়ে মেকআপ করলে সারাদিনেও নষ্ট হওয়ার কোনও ভয় নেই। 

৩| ফেসেস কানাডা গো চিক ফাউন্ডেশন (FACES Canada Go Chic Foundation)

আপনি যদি বয়স ধরে রাখতে চান, তাহলে মেকআপের সময় এই ফাউন্ডেশন ব্যবহার করাটা মাস্ট। এর অ্যান্টি এজিং ফরমুলা ত্বককে তরতাজা রাখতে সাহায্য করে। 

৪| ববি ব্রাউন স্কিন ফাউন্ডেশন (Bobbi Brown Skin Foundation SPF 15)

এই ফাউন্ডেশন ত্বকের ভিতরে গিয়ে মেকআপ বসাতে সাহায্য করে। মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী করতেও এর জুড়ি মেলা ভার।

৫| ল’রিয়াল প্যারিস ট্রু ম্যাচ মিনারেল ফাউন্ডেশন (LOREAL True Match Skin Improving Mineral Makeup Foundation)

এই ম্যাট ফাউন্ডেশন ত্বকে মেচেতা সহ অন্যান্য দাগ দূর করতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন (How To Apply Foundation To Normal Skin)

ফাউন্ডেশন কীভাবে ব্যবহার করবেন, সেটা জেনে নেওয়া জরুরি। ব্যবহার করতে না জানলে আপনার মেকআপ প্রপার হবে না।

১| প্রথমেই স্ক্রাবারের সাহায্যে মুখ পরিস্কার করে ফেলুন। ঠাণ্ডা জল এবং কটন প্যাড দিয়ে তুলে ফেলুন মুখের ময়লা।

২| ত্বক শুকনো থাকলে ফাউন্ডেশন ফেটে ফেটে যাবে, ঠিক মতো বসানো যাবে না।

৩| আপনার সাধারণ ত্বক। তাই যে কোনও ধরনের ময়শ্চারাইজার মেখে নিন ফাউন্ডেশন লাগানোর আগে।

৪| ত্বকের ধরন অনুযায়ী ফাউন্ডেশন অ্যাপ্লাই করার পাঁচ থেকে ১০ মিনিট আগে ময়শ্চারাইজার লাগান।

৫| শুধু মুখ নয়। ঘাড়, গলা, পিঠ যেখানে যেখানে মেকআপ করতে চান, সব জায়গাতেই ময়শ্চারাইজার অ্যাপ্লাই করুন।

৬| ত্বকের রঙের থেকে একটু ডার্ক ফাউন্ডেশন কিনুন। চোখের তলা, চিবুকে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

৭| ফাউন্ডেশন ব্রাশ দিয়ে অ্যাপ্লাই করার পর পাফ দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।

৮| ফাউন্ডেশন কোথাও ফেটে গেলে হালকা আঙুলে বা পাফ দিয়ে সেট করে নিন।

৯| তারপরও যদি ফেটে যাওয়ার সমস্যা থাকে কনসিলার ব্যবহার করুন।

১০| ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার ব্যাবহার করে সেট করে নিন ফাউন্ডেশন। 

কম্বিনেশন ত্বকের উপযোগী পাঁচটি ফাউন্ডেশন (5 Best Foundations For Combination Skin)

আপনার ত্বক যদি কম্বিনেশন হয়, তাহলে কোন কোন ফাউন্ডেশন দিয়ে মেকআপ করতে পারেন, তা একনজরে দেখে নিন। ত্বকের উপযুক্ত এই ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করলে বিভিন্ন রকমের দাগ হয়ে যেতে পারে।

১| এনওয়াইএক্স প্রফেশনাল ম্যাট ফ্ল্যাট লিকুইড ফাউন্ডেশন (NYX Professional Makeup Stay Matte But Not Flat Liquid Foundation)

এই ফাউন্ডেশনের অয়েল ফ্রি ওয়াটার বেস ফর্মুলা ম্যাট ফিনিশ লুক দেবে আপনাকে।

২| মেবেলিন নিউ ইয়র্ক ফিট মি ম্যাট + পোরলেস লিকুইড ফাউন্ডেশন (Maybelline New York Fit Me Matte + Poreless Liquid Foundation)

এই ম্যাট ফিনিশ লিকুইড ফাউন্ডেশন ত্বকের ফ্ললেস ফিনিশ দেবে। দিনভর ফ্রেশ রাখবে আপনাকে।

৩| কালারবার অ্যাকোফিল ফাউন্ডেশন (Colorbar Aquafeel Foundation)

পার্টি লুকের মেকআপে আদর্শ এই ফাউন্ডেশন। কারণ এটি ব্যবহার করলে মেকআপ দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হবে।

৪| মেবেলিন নিউ ইয়র্ক ড্রিম সাটিন স্কিন লিকুইড ফাউন্ডেশন (Maybelline New York Dream Satin Skin Liquid Foundation)

আল্ট্রা ব্লেন্ডেড টেক্সচার পাবেন এই ফাউন্ডেশনে। এটি ত্বক বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পরীক্ষিত।

৫| ড্রপ দ্য বেস সিরাম ফাউন্ডেশন (Drop The Base Serum Foundation)

লাইট ওয়েট এই ফাউন্ডেশনের মধ্যে ফ্লুয়িডের পরিমাণ বেশি থাকায় তা ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন (How To Apply Foundation On Combination Skin)

ফাউন্ডেশন কীভাবে ব্যবহার করবেন, সেটা জেনে নেওয়া জরুরি। ব্যবহার করতে না জানলে আপনার মেকআপ প্রপার হবে না।

১| ক্লিনজার ব্যবহার করে মুখের তৈলাক্ত ভাব আগেই দূর করতে হবে।

২| হাইড্রক্সিড অ্যাসিড সমৃদ্ধ স্ক্রাবার ব্যবহার করুন সপ্তাহে তিন বার।

৩| এসপিএফ যুক্ত ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

৪| ক্রিম, জেল বা পাউডার সমৃদ্ধ প্রাইমার লাগিয়ে নিন।

৫| আপনার ত্বকের উপযুক্ত ফাউন্ডেশন বেছে নিতে হবে। যদি রঙ না ম্যাচ করে দুটো আলাদা টোনের ফাউন্ডেশন একসঙ্গে মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন।

৬| অল্প ফাউন্ডেশন প্রথমে ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন।

৭| প্রথম নেওয়া ফাউন্ডেশন মিশিয়ে নেওয়ার পর প্রয়োজন হলে আরও একটু নিতে পারেন।

৮| প্রয়োজন হলে হালকা আঙুল চালিয়ে মিলিয়ে নিন ফাউন্ডেশন।

৯| ব্রাশ বা স্পঞ্জ রাখুন হাতের সামনে। ফুল কভারেজের জন্য এগুলি ব্যবহার করা প্রয়োজন।

১০| ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ এড়াতে অবশ্যই ব্রাশ ব্যবহার করুন।

আঙুলের সাহায্যে কীভাবে ফাউন্ডেশন লাগাবেন? (How To Apply Foundation With Fingers)

আঙুল দিয়ে ফাউন্ডেশন লাগালে একটা ন্যাচারাল ফিনিশ আপনি পাবেন এটা গ্যারান্টি। তবে এর জন্য লোমকূপের মুখ ভাল করে বন্ধ করতে হবে। হালকা হাতে মাসাজও করতে হবে। আঙুলের মাথা ব্যবহার করে অ্যাপ্লাই করতে পারেন। তবে মেকআপ বিশেষজ্ঞদের মতে, ফ্ললেস এফেক্ট পেতে হলে ব্রাশ ব্যবহার করা উচিত। 

ফাউন্ডেশন সংক্রান্ত নানা প্রশ্নোত্তর (FAQs)

ফাউন্ডেশন ব্যবহারের পদ্ধতি নিয়ে সাধারণ কিছু প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করলাম আমরা। 

১| ফাউন্ডেশন ব্যবহারের সবচেয়ে উপযুক্ত জিনিস কী?

ব্রাশের সাহায্যে ফাউন্ডেশন অ্যাপ্লাই করলে তা পারফেক্ট হয়। মুখ, গলার আলাদা ধরনের ব্রাশ কিনতে পাওয়া যায়। ফুল, হাফ অথবা মিডিয়াম কভারেজের জন্যও ব্রাশের ধরন এক এক রকমের হয়। 

২| ফাউন্ডেশন কি ঘষে ঘষে অ্যাপ্লাই করতে হবে?

ফাউন্ডেশন হালকা হাতে ব্লেন্ড করে দেওয়া জরুরি। ঘষে লাগানো একেবারেই উচিত নয়।

৩| কীভাবে সঠিক ফাউন্ডেশন বেছে নেবেন?

আপনার ত্বকের তুলনায় এক শেড লাইট ফাউন্ডেশন কেনা ভাল। তবে কেমন স্কিন টোন কেমন চাইছেন, এটা তার ওপরও নির্ভর করে। প্রয়োজন হলে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে নিন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..