logo
Logo
User
home / রূপচর্চা ও বিউটি টিপস
স্কিনটোন অনুযায়ী বেছে নিন মেকআপের শেড – রইল গাইডবুক

স্কিনটোন অনুযায়ী বেছে নিন মেকআপের শেড – রইল গাইডবুক

সারা বছর তো মেকআপের দিকে আমরা কেউই তেমন নজর-টজর দিই না। ওই কোনও অনুষ্ঠানে, পয়লা বৈশাখ কিংবা কোনও বিয়েবাড়ি এলে একটু-আধটু পোঁচ মারি মুখে! কিন্তু শীতের সময় তো সেলফি রেডি মুখ চাই! আর সেই কাজেই আপনাকে সাহায্য করতে এসেছি আমরা। এখানে দেওয়া হল একটি দীর্ঘ, সুবিন্যস্ত মেকআপ গাইড যা যে-কোনও স্কিনটোনের জন্যই মানানসই! (how to choose makeup palates according to skintone)

যারা শ্যামবর্ণা বা ডাস্কি স্কিনটোনের অধিকারিণী

কীভাবে মেকআপ করবেন আর কী দিয়ে করতে পারেন, তা তো জেনে নেওয়া গেল ত্বকের ধরন অনুযায়ী। কিন্তু বেস মেকআপ থেকে শুরু করে ঠোঁট, সবকিছুই করতে হবে আপনার ত্বকের ধরন এবং টোন অনুযায়ী! মানে, সোজা বাংলায় বলতে গেলে, প্রোডাক্ট কেনার সময় ত্বকের ধরন অনুযায়ী তার বৈশিষ্ট্য দেখবেন আর তার শেড বাছবেন আপনার ত্বকের টোন অনুযায়ী! কীভাবে সেই সম্বন্ধেই এখানে গাইড করব আমরা। শুরু করছি, শ্যামবর্ণারা কী-কী মেকআপ শেড ব্যবহার করতে পারেন, তা দিয়ে…

বেস মেকআপের নানা প্রোডাক্ট

বেস মেকআপের নানা প্রোডাক্টের শেড বেছে নেওয়া কিন্তু চাট্টিখানি কথা নয়! এখানে কয়েকটি শেড বলে দেওয়া হল, যেগুলি শ্যামবর্ণারা ব্যবহার করতে পারেন। তবে শেষ পর্যন্ত কিন্তু টেস্ট করে তবেই কিনবেন এই ধরনের প্রোডাক্টগুলি।

  • প্রাইমারের শেড: ক্যারামেল, রেডিয়েন্ট ইয়েলো
  • ফাউন্ডেশনের শেড: বেজ, ক্যারামেল, মোকা, ব্রাউন, ডিপ
  • কনসিলারের শেড: চেস্টনাট, মিডিয়াম টু ডার্ক
  • ট্রান্সলুসেন্ট পাউডারের শেড: ডাস্কি, হুইটিশ টু ডার্ক
  • ব্লাশ অনের শেড: গাঢ় লাল, কালচে খয়েরি, চেস্টনাট, ক্যারামেল

এগুলি হোক চোখের মেকআপের শেড

শ্যামবর্ণাদের চোখের মেকআপে যে-যে শেড ব্যবহার করা যেতে পারে, সেগুলি হল…

আই মেকআপ শেড: পার্পল, গোল্ড, ব্রোঞ্জ, ব্লু ইত্যাদি, যদি সেফ খেলতে চান! যদি একটু এক্সপেরিমেন্টাল মেকআপে যেতে চান, তা হলে বেছে নিন হলুদ, শকিং পিঙ্ক, পাউডার পিঙ্কের মতো রং! এক্সপেরিমেন্ট করতে পারেন আইলাইনার এবং আইপেনসিলের শেড নিয়েও। কালো ছাড়াও মানাবে হালকা নীল, প্যাস্টেল সবুজ শেড। মাস্কারায় থাকুক আরও সাহসের ছোঁওয়া! নীল কিংবা পার্পল রঙে রাঙিয়ে দিন চোখের পাতা!

ঠোঁটের মেকআপের নানা রং স্কিনটোন অনুযায়ী লিপস্টিক

  • লিপস্টিকের শেড: কপার ব্রাউন, গাঢ় লাল, রোজ পিঙ্ক, ম্যাজেন্টা, চকোলেট ব্রাউন, পিচ, ব্রোঞ্জ, নুড শেড
  • লিপ গ্লসের শেড: ব্রোঞ্জ, হানি, লালচে ব্রাউন

যাঁদের ত্বকের রং শ্যামবর্ণ, তাঁদের এই রংয়ের লিপস্টিক ও লিপ গ্লস মানাবে। এমনকী, এগুলো মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করেও লাগাতে পারেন!

যারা গমরঙা বা হুইটিশ স্কিনটোনের অধিকারিণী

বেশিরভাগ ভারতীয় মহিলাই আসলে এই গমরঙা ত্বকেরই অধিকারিণী। আর এই ধরনের ত্বকে বেশিরভাব শেডই মানায়! ফলে মেকআপের রং পছন্দ করাটা আপনাদের জন্য অনেক সহজ, বিশেষত চোখ আর ঠোঁটের মেকআপ। তবুও আপনাদের কাজ হালকা করতে এখানে একটি ডিটেলড প্রোডাক্ট শেড কার্ড দিয়ে দেওয়া হল…

বেস মেকআপের নানা প্রোডাক্ট

বেশিরভাগ ব্র্যান্ডই হুইটিশ বলে একটি আলাদা শেডই তৈরি করে ফেলেছে সাধারণ ভারতীয় ত্বকের রংয়ের জন্য! বেস মেকআপ প্রোডাক্ট কেনার সময় এই ইন্ডিয়ান স্কিন টোন কালারটি দেখে কিনুন। এই রেঞ্জে পাবেন আইভরি, পার্ল, ডেজার্ট বেজ, বেজ, ক্যারামেল ইত্যাদি। তারপর পারফেক্ট শেডটি বেছে নেওয়ার জন্য হাতের উপরে ফেলে টেস্টিং তো আছেই!

তবে ব্লাশ অন কেনার সময় বেছে নিন কফি, চকোলেট, চেস্টনাট, মোকা ইত্যাদি ব্রাউন ফ্যামিলি ঘেঁষা রংগুলিকে। কন্টোরিংটা ভাল করে করতে পারবেন তা হলে!

এগুলি হোক চোখের মেকআপের শেড

আইশ্যাডোর শেড কার্ড: গোল্ড, ব্রোঞ্জ, অরেঞ্জ রেড, ব্রাউন, ব্লু, পার্পল, গ্রিন

আইশ্যাডোর ক্ষেত্রে এই রংগুলি গমরঙা ত্বকে বেশি মানাবে। লাইনার ও আই পেনসিল বেছে নিন ঘন কালো রংয়ের। একটু অন্য রং স্পোর্ট করতে ইচ্ছে হলে লাগাতে পারেন গাঢ় খয়েরিও। মাস্কারা অবশ্যই কালো রংয়ের হবে।

ঠোঁটের মেকআপের নানা রং স্কিনটোন অনুযায়ী

এই ধরনের ত্বকের অধিকারিণীদের ঠোঁটে মানিয়ে যায় প্রায় সব রংই! তবুও কয়েকটি শেড যেন কথা বলে এঁদের ঠোঁটে, সেগুলি হল…

  • লিপস্টিকের শেড: নুড, কোরাল, ব্রিক রেড, মেরুন, বার্গান্ডি, ফুশিয়া, রক্ত লাল, ব্রোঞ্জ
  • লিপ গ্লসের শেড: নুড, সিনামন, বার্গান্ডি

যারা গৌরবর্ণা বা লাইট স্কিনটোনের অধিকারিণী

যাঁরা ভাবেন যে, রং একটু ফরসার দিকে হলেই আপনারা যে-কোনও রংয়েই সুন্দরী হয়ে উঠবেন, তাঁরা কিন্তু ভুল ভেবেছেন! কারণ, ফর্সারও রকমফের আছে। আপনি হলদেটে ফর্সা নাকি গোলাপি ফর্সা, তার উপরেও নির্ভর করবে আপনার মেকআপ প্রোডাক্টের শেড! হলদেটে ফর্সা হলে আপনি ওয়ার্ম আন্ডারটোনের মানুষ আর গোলাপি ফর্সা হলে আপনাকে ধরা হবে কুল আন্ডারটোনের অধিকারী বলে। আর এই আন্ডারটোনের উপর ভিত্তি করেই কেনা উচিত মেকআপ প্রোডাক্টস। তবে আপনাকে অত চিন্তা করতে হবে না। কারণ, আমরা নিয়ে এসেছি মুশকিল আসান!

বেস মেকআপের নানা প্রোডাক্টের শেড কার্ড

বেস মেকআপ প্রোডাক্টটি যা-ই হোক না কেন, তার শেডের ক্ষেত্রে আপনাদের একটা থাম্ব রুল মেনে চলতে হবে। সেটি হল, আপনাকে ওয়ার্ম আন্ডাটোনের শেড বাছতে হবে। মানে, আপনার বেস মেকআপের যে-কোনও প্রোডাক্টের শেড ঘোরাফেরা করবে মিউটেড অরেঞ্জ, পিচ ও হানি-র মধ্যে।

আপনাদের ক্ষেত্রে কতগুলি শেড একেবারে কিনতে মানা! সেগুলি হল, ব্রোঞ্জ, কপার ও ডার্ক ব্রাউন।

এগুলি হোক চোখের মেকআপের শেড

চোখের মেকআপ করার সময় ফর্সা স্কিন টোনের অধিকারিণীরা খুব একটা পরীক্ষানিরীক্ষা করতে পারেন না। কারণ, ত্বকের সাদা রংয়ের জন্য যে-কোনও শেডই তাঁদের চোখে ফ্যাটফ্যাটে হয়ে ফুটে ওঠে। এঁরা যে রংগুলি বেছে নিতে পারেন আই মেকআপের জন্য, সেগুলি হল…

আইশ্যাডোর শেড: হানি, পিচ, মিউটেড অরেঞ্জ, শ্যাম্পেন, ব্রাউন, সফট পিঙ্ক।

তবে এঁরা কাজল আর কোহলের কম্বিনেশনে বোল্ড লুক আনতে পারেন নিজেদের চোখে!

ঠোঁটের মেকআপের নানা রং স্কিনটোন অনুযায়ী

যদিও আমাদের মনে বদ্ধমূল ধারণা যে, ফর্সাদের ঠোঁটে যে-কোনও রংই মানাবে, তবুও এই ধারণাকে ভুল প্রমাণ করে চলুন দেখে নিই, ফর্সারা ঠোঁটে কোন রং লাগাতে পারেন!

  • লিপস্টিকের শেড: রিচ রেড, অরেঞ্জ, পিঙ্ক, কোরাল, পিচ
  • লিপ গ্লসের শেড: অরেঞ্জ, ব্রাইট শিমারি পিঙ্ক, ব্রাইট রেড, অমব্রে, নুড, প্লাম

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

18 Dec 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text