রূপচর্চা ও বিউটি টিপস

ঘরোয়া টোটকায় মুক্তি নিশ্চিত ব্রণর দাগ থেকে! (how to remove acne scars naturally at home)

popadminpopadmin  |  Feb 7, 2019
ঘরোয়া টোটকায় মুক্তি নিশ্চিত ব্রণর দাগ থেকে! (how to remove acne scars naturally at home)

ব্রণ (acne) যতটা না ভয়ঙ্কর, তার থেকেও বেশি যন্ত্রণার হল ব্রণর দাগ (acne scars)। কারণ একদিন না একদিন এই বেয়াড়া ত্বকের রোগটি তো কমে যাবেই। কিন্তু ঘুমের ঘোরে বা অবচেতন মনে যদি একবার চুলকে ফেলো ব্রণ, তাহলেই সারে সর্বনাশ! কারণ চুলকে ফেললেই দাগ নিশ্চিত! আর সেই দাগ কিন্তু সারা জীবনের সঙ্গী হয়ে উঠতে পারে। আর এমনটা হলে ত্বকের সৌন্দর্যের দফারফা হতে যে সময় লাগে না, তা তো বলাই বাহুল্য! তবে ইতিমধ্যেই যারা এমন সমস্যার শিকার, তাদের চিন্তা দূর করতে এসে গেছি আমরা। কারণ ব্রণর দাগকে মিলিয়ে দিয়ে হারিয়ে যাওয়া সৌন্দর্যকে কীভাবে ফিরিয়ে আনতে হবে, সে পথ দেখাবে এই প্রবন্ধ!

ব্রণর দাগ থেকে নিস্তার পাওয়ার সহজ কিছু ঘরোয়া টোটকা (how to remove acne scars naturally at home) সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এই লেখায়। তাই তো এই প্রবন্ধটি পড়ে ফেলে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে যদি এই টোটাকগুলিকে (natural remedy) একবার কাজে লাগাতে পারো, তাহলেই দেখবে কেল্লা ফতে!

আরো পড়ুনঃ পিম্পল দূর হবে আয়ুর্বেদিক উপায়ে

১. কমলা লেবুর খোসা দিয়ে তৈরি পাউডার:

acne-orange-peels
এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে স্কিন লাইটনিং প্রপাটিজ, যা ত্বকের ভিতরে প্রবেশ করে এমন খেল দেখায় যে ব্রণর দাগ (scars) মিলিয়ে যেতে সময় লাগে না, সেই সঙ্গে ত্বকের জেল্লাও বাড়ে চোখে পড়ার মতো। তবে কমলা লেবুর খোসা দিয়ে তৈরি পাউডারটি সরাসরি মুখে লাগালে চলবে না কিন্তু! বরং এক্ষেত্রে ১ টেবিল চামচ কমলা লেবুর খোসা দিয়ে তৈরি পাউডারের পাশাপাশি প্রয়োজন পড়বে ১ চা চামচ মধুরও। এই দুটি উপাদান মিশিয়ে তৈরি পেস্ট মুখের যেখানে যেখানে ব্রণর দাগ রয়েছে, সেখানে সেখানে ভালো করে লাগাতে হবে। এরপর ততক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে, যতক্ষণ না পেস্টটা ড্রাই হয়ে যায়। এমনটা হওয়া মাত্র ভালো করে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখ। একদিন বাদ বাদ যদি এই মিশ্রনটি মুখে লাগানো যায়, তাহলে উপকার মিলতে দেখবে সময় লাগবে না।

২. বেসন এবং লেবুর রস:

acne-lemon
১ চামচ বেসনের সঙ্গে পরিমাণ মতো লেবুর রস এবং অল্প পরিমাণে গোলাপ জল মিশিয়ে বানানো পেস্ট, একদিন অন্তর অন্তর যদি মুখে লাগানো যায়, তাহলে শুধু ব্রণর দাগ (acne) নয়, যে কোনও ধরনের স্কার মিলিয়ে যেতে সময় লাগে না। কিন্তু এক্ষেত্রে একটা জিনিস মাথায় রাখা জরুরি, সেটা হল পেস্টটি যতক্ষণ না শুকিয়ে যাচ্ছে, ততক্ষণ কিন্তু মুখ ধোয়া চলবে না। 

৩. টি-ট্রি অয়েল:

acne-tee-tree-oil
ব্রণর দাগ থেকে মুক্তি পেতে এই প্রাকৃতিক উপাদানটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। কারণ এই তেলটিতে উপস্থিত অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ স্কিন টিস্যুর মেরামতি করার মধ্যে দিয়ে এমন ধরনের দাগকে মিলিয়ে দিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেই সঙ্গে ত্বকের ভিতরে প্রদাহের মাত্রা বেড়ে গিয়ে যাতে কোনও ধরনের স্কিন ডিজিজ মাথা চাড়া দিয়ে না ওঠে, সেদিকেও খেয়াল রাখে। কিন্তু প্রশ্ন হল, এত সব উপকার পেতে কী করতে হবে? এক্ষেত্রে ১ চামচ নারকেল তেলের সঙ্গে মেশাতে হবে ৩-৪ ফোঁটা টি-ট্রি অয়েল। তারপর সেই মিশ্রনটি রাতে শুতে যাওয়ার আগে মুখে লাগিয়ে ভালো করে মাসাজ করতে হবে। আর পরদিন সকালে উঠে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা। এমনভাবে যদি প্রতিদিন ত্বকের পরিচর্যা করা যায়, তাহলে দেখবে ফল মিলবে একেবারে হাতে-নাতে!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!