বিনোদন

‘ফাগুন বউ’-এর পর এখন কী করছেন ঐন্দ্রিলা?

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Jan 8, 2020
‘ফাগুন বউ’-এর পর এখন কী করছেন ঐন্দ্রিলা?

সদ্য শেষ হয়েছে জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ফাগুন বউ’। মহুল-রোদ্দুরের জুটি জনপ্রিয় হয়েছিল বাঙালি দর্শকের ঘরে ঘরে। আপাতত ছুটি। কেমন করে ছুটি কাটাচ্ছেন মহুল ওরফে ঐন্দ্রিলা (oindrila) সেন?

ছুটিটা নিখাদ ছুটির মতো করে কাটাতে ভালবাসেন ঐন্দ্রিলা। তাই এখন তাঁর নিজেকে সময় দেওয়ার পালা। নিজেকে প্যাম্পার করার পালা। আগামীদিনের জন্য সেরে নিচ্ছেন গ্রুমিংও। আর কাজ? ফের কবে অনস্ক্রিন তাঁকে দেখতে পাবেন দর্শক? ঐন্দ্রিলার জবাব, “আমার কাছে মাধ্যমটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। ভাল কাজ গুরুত্বপূর্ণ। ফিল্ম (film) বা টেলিভিশন (tv) যেটার কনটেন্ট ভাল লাগবে সেটাই করব। ফিল্মের কিছু স্ক্রিপ্ট পড়ছি। সবটাই ইনিশিয়াল স্টেজে। আসলে ফিল্ম তো কয়েকদিনের ব্য়াপার। আর টেলিভিশন শুরু হলে অন্তত এক বছর তো চলবেই। টেলিভিশনের এখনও কোনও স্ক্রিপ্ট শুনিনি। তবে ভাল কনটেন্ট হলে যে কোনও জায়গাতেই করব।”

কেরিয়ারের শুরু থেকেই মূলত প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঐন্দ্রিলা। এক কথায় তিনি তারকা। এ হেন ঐন্দ্রিলার শেষ জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ফাগুন বউ’-তে নাকি বেশ কিছু সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তার কেন্দ্রে নাকি ছিলেন ঐন্দ্রিলাই! সেটে সময়ে না পৌঁছনো, আলাদা মেকআপ রুমের দাবি সহ তাঁর বেশ কিছু চাহিদা মেটাতে নাকি নাজেহাল হয়ে গিয়েছিলেন প্রোডাকশনের সদস্য়রা। শোনা যাচ্ছে, লীনা গঙ্গোপাধ্যায় ও শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রোডাকশন হাউস তাঁর সঙ্গে আর কাজ করতে আগ্রহী নয়। অথচ এক সময়ে ঐন্দ্রিলাই সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, লীনা গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর মায়ের মতো। এসব অভিযোগ কি সত্যি? 

 

প্রশ্ন শুনে স্মিত হেসে ঐন্দ্রিলা বললেন, “লীনা আন্টিকে আজও আমি মায়ের মতোই শ্রদ্ধা করি। উনি আমার মায়ের থেকেও বয়সে বড়। আমি অভিভাবকের মতো মনে করি ওঁকে। কিছু সমস্যা হয়েছিল। আসলে যে স্পষ্টকথা মুখের উপর বলে দেয়, তাকে নিয়েই সমস্যা হয়। তার দিকেই আঙুল ওঠে। যাক… খারাপ এক্সপিরিয়েন্স হওয়াটাও দরকার। এবার মানে পরের কাজগুলোতে আরও কোমর বেঁধে নামতে পারব। এখন তো জেনে গেলাম, কে কোথা থেকে কী করেছে…। আর সেই ‘সাত পাকে বাঁধা’র সময় থেকেই আমি আলাদা মেকআপ রুম পাই। কোনও ভুল দাবি ছাড়াই। আমার প্রযোজক বা সহ অভিনেতা বিক্রমকে জিজ্ঞেস করতে পারেন।”

 

পুরনো কথা মনে রাখতে চান না ঐন্দ্রিলা। বরং কাজে ফিরতে চান। ফিল্ম, টেলিভিশন শুধু নয়, ওয়েব নিয়েও ভাবনা-চিন্তা করছেন তিনি। “আমি নেটফ্লিক্স খুবই দেখি। বেশ কিছু কনটেন্ট আমর ভাল লেগেছে। এক একটা সিরিজ সকাল থেকে বসে নাওয়া, খাওয়া ভুলে রাতে শেষ করেছি, এমনও হয়েছে। ফলে ওয়েব আমার ভাল লাগে। কিন্তু ওয়েব মানেই শরীর দেখানো, এই ধারণাটা মানুষের মনে ঢুকে গিয়েছে। সেটা ঠিক নয়। সেটা বাদ দিয়ে কোনও অফার এলে ডেফিনেটলি ভেবে দেখব” বললেন অভিনেত্রী।

 

Instagram

কেরিয়ারের ব্যস্ততা তো থাকবেই। অঙ্কুশের সঙ্গে বিয়েটাও কি নতুন বছরেই সেরে ফেলবেন? হেসে ঐন্দ্রিলার জবাব, “না, এখনও কোনও প্ল্যান নেই।” 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম…আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!