বিনোদন

‘আমার ক্যানসার নেই’, নতুন হেয়ারস্টাইল নিয়ে ট্রোলিংয়ের জবাব দিলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়

Swaralipi BhattacharyyaSwaralipi Bhattacharyya  |  Aug 23, 2020
‘আমার ক্যানসার নেই’, নতুন হেয়ারস্টাইল নিয়ে ট্রোলিংয়ের জবাব দিলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়

স্বস্তিকা (Swastika) মুখোপাধ্যায়। এখন শুধু আর টলিউডে আটকে থাকা নয়। জাতীয় স্তরে জনপ্রিয় একটি নাম। যাঁরা স্বস্তিকাকে বহুদিন ধরে চেনেন, তাঁরা জানেন, নিজের শর্তে জীবন বাঁচতে ভালবাসেন তিনি। সে কেরিয়ারে ফিল্ম পছন্দ করাই হোক বা ব্যক্তিগত জীবন। নিজের সিদ্ধান্তে বরাবর অটল থাকতে পছন্দ করেন।

এ হেন স্বস্তিকা ফ্যাশন আইকন। নিজেকে অন্য ভাবে সাজাতে পারেন তিনি। শাড়ি হোক বা ওয়েস্টার্ন যে কোনও পোশাকে নিজেকে আলাদা ভাবে প্রেজেন্ট করেন। তাঁকে দেখে নিজেদের পোশাক পছন্দ করেন অনেকে। আবার হেয়ারস্টাইলেও নিজেকে আলাদা করে তুলেছেন তিনি। কখনও সুন্দর হেয়ারস্টাইলে নীল রঙের ছোঁয়া, কখনও বা সবুজ। সবথেকে বড় কথা ট্রেন্ডি হেয়ারস্টাইল (hairstyle) যে কোনও লুকের সঙ্গে ক্যারি করতে পারাতেই তাঁর আসল ক্যারিশমা। তবে এবার এই হেয়ারস্টাইল নিয়েই ট্রোলিংয়ের শিকার হলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলারদের মুখের উপর জবাবও দিয়েছেন তিনি। 

সম্প্রতি স্বস্তিকা নিজের নো মেকআপ লুকের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। যেখানে তাঁকে ‘আন্ডারকাট’ লুকে দেখা যাচ্ছে। সেই হেয়ারস্টাইল নিয়ে নানা রকম মন্তব্য ভেসে বেড়ায় সোশ্যাল ওয়ালে। প্রশংসার তুলনায় সমালোচনার অংশ যেন বেশি করে নজরে পড়ে। নায়িকা কেন এমন হেয়ারস্টাইলে নিজেকে সাজিয়েছেন, তা নিয়ে রীতিমতো তদন্ত শুরু হয়। 

 

এ সবের উত্তরে স্বস্তিকা লেখেন, “না, আমার ক্যানসার নেই ( আমি প্রার্থনা করব কখনও যেন না হয়), আমি গাঁজা খাই না, কখনও রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারে যেতে হয়নি আমাকে। আমার মাথা, আমার চুল, সুতরাং তা নিয়ে আমার যা ইচ্ছে করব। সব প্রশ্নেক উত্তর দেওয়া হয়েছে? এবার আনন্দ করুন।”

তবে এই ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও স্বস্তিকা নিজের হেয়ারস্টাইল নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় উড়ো মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছেন। তাঁর হেয়ারস্টাইল দেখে জনৈক যখন লেখেন, “মেক আপ নেই, ফিল্টার নেই একদম ভাল লাগছে না দেখতে।” স্বস্তিকার উত্তর, “এখন তো খারাপই চলছে। চিয়ার্স টু লুকিং ব্যাড।”

শুধু হেয়ারস্টাইল নয়। কখনও নিজের শারীরিক গঠন, কখনও বা পোশাক নিয়ে ট্রোলিংয়ের শিকার হয়েছেন স্বস্তিকা। তবে কখনও চুপ করে থাকেননি। নিজের যেটা ঠিক মনে হয়েছে, সেই মত সোচ্চারে প্রকাশ করেছেন। মেয়েদের পোশাক, স্টাইল নিয়ে মরাল পুলিশি সমাজের সর্বস্তরে প্রতিনিয়ত হয়ে চলেছে। স্বস্তিকা সেলেব বলে হয়তো তার সংখ্যা অনেক বেশি। সেলেবদের ব্যক্তিগত জীবন রয়েছে। আর সেখানে তাঁর সিদ্ধান্তই শেষ কথা। এই সরল সত্যিটা কবে বুঝবেন সমাজের একটা বড় অংশের মানুষ? এই প্রশ্ন ঘুরে বেড়ায় বিভিন্ন মহলে। যদিও এর কোনও সুদত্তর সত্যিই নেই কারও কাছে। তবে নিজেদের আচরণ না বদলালে সত্যিই কি সাবালক হবে সমাজ?

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!