আগামীকাল মকর সংক্রান্তির দিন এই কাজগুলো ভুলেও করবেন না, তাতে শান্তি-উন্নতি বিঘ্নিত হবে!

আগামীকাল মকর সংক্রান্তির দিন এই কাজগুলো ভুলেও করবেন না, তাতে শান্তি-উন্নতি বিঘ্নিত হবে!

মকর সংক্রান্তি (Makar Sankranti) দিনটা ঠিক কী, এই প্রশ্ন যদি আজকাল কোনও বাঙালিকে করেন, শতকরা ৭০ জন লোক আপনাকে বলবেন, ওদিন গঙ্গাসাগর মেলা শুরু আর পিঠেপুলি খেতে হয়। নিন, বুঝুন কী বুঝবেন! এদিকে উত্তর ভারতে লোকে শীতে কাঁপতে-কাঁপতে মকর সংক্রান্তি, লোহরি পালন করছে, ক্ষেতে-ক্ষেতে নতুন ফসল, নতুন ধান, নতুন গুড়, চাষীদের ঘরে খুশির বান, আবহাওয়া আপিসের খবর অনুযায়ী আগামীকালের পর থেকে নাকি শীতও কমে যাবে, কাল থেকে দিন-রাতের দৈর্ঘ্য সমান হবে...অথচ এত সব সাধারণ জ্ঞান বাঙালি জনসাধারণের প্রায় নেই বললেই চলে। তারা গঙ্গাসাগরে ডুব দিয়ে আর পিঠেপুলি খেয়েই খুশি। তাই আজ এই প্রতিবেদনের অবতারণা। মকর সংক্রান্তি দিনটি কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং এদিন আপনার কী-কী করা উচিত আর কী-কী নয়, তা নিয়েই কিঞ্চিৎ গল্প শোনাব আপনাদের। সেই সঙ্গে জেনে নিন এদিন কী করলে এবং কী না করলে (avoid these things) সৌভাগ্য (good luck) আপনার সঙ্গী হবে। 

মকর সংক্রান্তির ইতিকথা

Instagram

যখন ভূগোল বলে ব্যাপারটা স্কুলে পড়ানো হত না, কিংবা স্কুল ব্যাপারটাই ছিল না, তখনও মকর সংক্রান্তি আমাদের জীবনে ছিল। পৌষ মাসের শেষ দিনটিই মকর সংক্রান্তি নামে পরিচিত। এদিন থেকে সূর্যের উত্তরায়ণ শুরু হয়। হিন্দু পালাপার্বণ সাধারণত চান্দ্র ক্যালেন্ডার মেনে করা হয়। এই দিনটি কিন্তু ব্যতিক্রম। কারণ, এই দিনটি পালিত হয় সৌর ক্যালেন্ডার অনুযায়ী। ফলে বিষুবায়নের সঙ্গেও মিলে যায় এই দিনটি। এই দিন থেকে সূর্য প্রবেশ করেন মকরে। সকালে ব্রাহ্মমুহূর্তে সূর্যদেবকে স্মরণ করে গঙ্গা, যমুনা, ভাগীরথী, কাবেরী, গোদাবরী নদীতে স্নান এবং তার সঙ্গে মন্ত্রোচ্চারণ, তারপর তিল-গুড় দিয়ে তৈরি মিষ্টি খাওয়া...মকর সংক্রান্তি কিংবা পৌষ সংক্রান্তির এটাই সবচেয়ে বড় রেওয়াজ। তিলের পরিবর্তে অনেকে আজকাল নানা ধরনের মিষ্টি খান। কিন্তু নলেন গুড় চাই-ই। দেশের বিভিন্ন রাজ্যের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গেও নানা শহরে পৌষ সংক্রান্তিতে মেলা বসে, হয় পিঠেপুলি উৎসবও। মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, তামিলনাড়ু, বিহার, গুজরাত, উত্তরপ্রদেশ...সর্বত্র কাল থাকবে খুশির মেজাজ। অনেকে আবার ঘুড়িও ওড়ান এদিন।

মকর সংক্রান্তির দিন কী করবেন এবং কী করবেন না

Instagram

১) ঘুম থেকে উঠে চা-কফি কিছু পান না করেই স্নান করে নেবেন। সম্ভব হলে এদিনের স্নানটা উপরে বলা কোনও নদীতে সারুন। না হলে সূর্যদেবের উদ্দেশ্যে প্রণাম করে বাড়িতেই স্নান করে নিন। স্নান সেরে, পুজো করে তবেই কিছু মুখে দেবেন।

২) এদিনটি ভুলেও আমিষের দিকে তাকাবেন না। এমনকী, পেঁয়াজ-রসুন, যেগুলিকে সাধারণ বাঙালি বাড়িতে নিরামিষ বলে ধরা হয়, সেগুলিও এদিন এড়িয়ে চলুন। 

৩) মকর সংক্রান্তিতে কোনও ভিখিরি ভিক্ষে চাইলে তাকে ফেরাবেন না। এতে সূর্যদেব রুষ্ট হন।

৪) সম্ভব হলে এদিন কোনও দুঃখীকে অন্ন-বস্ত্র দান করুন।

৫) যাঁরা ধূমপান করেন কিংবা মদ্যপান করেন, তাঁরা এদিনটি ওসব জিনিসের দিকে ভুলেও তাকাবেন না।

৬) দুপুরে ও রাতে নিমামিষ খিচুড়ি খান। তাতে শনিদেবের কোপে পড়ার আশঙ্কা কমে যাবে।

৭) এদিন পারলে গাছ লাগান। না লাগাতে পারলে ক্ষতি নেই, কিন্তু গাছের পাতা ছিঁড়বেন না, গাছ কাটবেন না কিংবা গাছের ফুল তুলবেন না।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!