ঐশ্বর্য-সলমনকে নিয়ে মিম বিবেক ওবেরয়ের, বকুনি দিলেন সোনম কপূর!

ঐশ্বর্য-সলমনকে নিয়ে মিম বিবেক ওবেরয়ের, বকুনি দিলেন সোনম কপূর!

এই কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালটাই হচ্ছে যত্ত নষ্টের গোড়া! টলিউডের শুভশ্রী থেকে বলিউডের বিবেক ওবেরয়, কেউ কম যাচ্ছেন না! সকলেই কানের ঘোলা জলে মাছ ধরবেন বলে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন! এই তো সেদিন শুভশ্রী লাইম গ্রিন পরে ছবি দিয়ে ট্রোলড হলেন, এবার বিবেক ওবেরয়ও হেঁটে ফেললেন সেই রাস্তায়! 


অবশ্য কী-ই বা করেন বলুন তো বেচারা! হাতে ছবি নেই, সুতরাং, তিনিও খবরে নেই! এই সময় মানুষ হন্যে হয়ে যায়! বিবেকও ব্যতিক্রম নন, তিনিও হন্যে হয়ে নিজেকে খবর করার সুযোগ খুঁজছিলেন। এবার ভরা ইলেকশন আর কানের বাজার, দুটোকে ক্লাব করতে গিয়েই গুবলেট করে ফেলেছেন! 


ব্যাপারটা একটু খুলেই বলি। আজ নিজের টুইটার হ্যান্ডলে বিবেক (Vivek) একটি টুইট করেছেন, যেটি তাঁর পুরনো প্রেম ঐশ্বর্য (Aishwarya) এবং সেই বাবদ পুরনো এনিমি সলমন (Salman) খানকে নিয়ে। কেন, কারণ, নিজের জীবনের ওই সংয়েই বিবেক একমাত্র ওই যাকে বলে খবরে ছিলেন! বাকি সময় তো ফক্কা! তখন ঐশ্বর্যকে নিয়ে ছবি, তাঁকে নিয়ে টক শো, সলমন কেন তাঁকে হুমকি ফোন করেছেন তা নিয়ে প্রেস কনফারেন্স, কোনওকিছুই বাকি রাখেননি তিনি! কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। বিবেকের কেরিয়ারটি যে-ই না নেতিয়েছে, এমনই অ্যাশ ফুড়ুত করে পলকা ওবেরয় ডালটি ছেড়ে মোটা বচ্চন-ডালে গিয়ে বসেছেন! কিন্তু বিবেক তো সেই জ্বালা ভুলতে পারেননি এখনও! তাই অ্যাওয়ার্ড ফাংশনে সলমনের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেও ঐশ্বর্যকে শিক্ষা না দেওয়াটা বোধ হয় তাঁকে জ্বালাচ্ছিল! তাই টুইটটি করেই ফেলেছেন! নীচে টুইটটি দিলুম, আগে দেখে নিন, বুঝে নিন কেন এই টুইট নিয়ে এত গন্ডগোল...তার পরে আমরা বাকি গল্পটা বলছি।



এই টুইটের পর কি আর বাজার মন্দা থাকে! অমনই নেটিজেনরা গুছিয়ে ট্রোল করা শুরু করেছেন! এবার আপনি বলবেন, এই টুইট করে বিবেকের লাভ কী হল? আমরা বলব, হল বই কী! এই যে আমরা তাঁকে নিয়ে স্টোরি করছি আর আপনি তা পড়ছেন...এমনি যদি নির্বাচনের রেজাল্ট বা তাঁর আগামী ছবি নিয়ে বিবেক টুইট করতেন, আপনি পড়তেন, নাকি আমরাই স্টোরি করতাম!


তবে এই টুইটে সবচেয়ে বেশি রেগে গিয়েছেন সোনম (Sonam) কপূর! তিনি বলেছেন, এই টুইট অত্যন্ত অপমানজনক, বিবেকের কোনও ক্লাস নেই! তা ঠিকই বলেছেন! কিন্তু মজা হচ্ছে, যত দূর মনে পড়ছে, এই সোনমও এককালে ঐশ্বর্যকে কীসব আন্টি-টান্টি বলেছিলেন না? অবশ্য অনেকদিন আগের কথা, আমারও ঠিক মনে পড়ছে না আর সোনমও বোধহয় বিয়ে-থাওয়া করে অনেক বেশি ম্যাচিওরড হয়েছেন! তাই অন্যের বাজে কাজের নিন্দে করেছেন! অবশ্য কে যেন বলছিল, ওসব কিচ্ছুটি নয়, নিজের কানে যাওয়ার সময় হয়েছে বলেই সোমন মোমেন্টাম তৈরি করছেন...কে জানে বাবা, সেলিব্রিটিদের কিসসু বিশ্বাস নেই!


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!