বাঙালি বাবাদের কিছু টিপিক্যাল বৈশিষ্ট্য, দেখুন তো, আপনার বাবা কোন শ্রেণীতে পড়েন!

বাঙালি বাবাদের কিছু টিপিক্যাল বৈশিষ্ট্য, দেখুন তো, আপনার বাবা কোন শ্রেণীতে পড়েন!

ভিড়ের মধ্যে বাঙালিকে (bengali) চিনবেন কী করে? ভুল করে যদি তিনি ধ্যাত বা ধুত্তর বলে ফেলেন, তাহলে সহজেই চিনে নিতে পারবেন। আর যদি বলি ভিড়ের মধ্যে বাঙালি বাবাকে (fathers) চিনবেন কী করে? অমনই মাথা চুলকোতে শুরু করলেন তো? ভাবছেন, বাঙালি বাবার আলাদা কোনও শ্রেণী হয় নাকি? আলবাত হয়! অ্যাদ্দিন ধরে বাংলা ছবি দেখে এসে এটুকুও বোঝেননি। বাস্তব জীবনের আদলেই তো সিনেমা তৈরি হয় নাকি। তাই বাঙালিদের যেমন নিজস্ব কিছু বৈশিষ্ট্য আছে ঠিক তেমনি বাঙালি বাবাদেরও কিছু স্পেশ্যাল বৈশিষ্ট্য আছে। তা হলে দেরি কেন? এঁদের মধ্যে আপনার বাবা কোনটা খুঁজে নিন তা হলে!

আরো পড়ুনঃ ফাদার্স ডে’র জন্য সেরা কোটস, কবিতা ও মিম

ভাল বাবা

youtube

এঁরা হচ্ছেন দিলদরিয়া বাবা। যেমন ‘দিলওয়ালে দুলহনিয়া লে যায়েঙ্গে’র অনুপম খের। বা বাংলা ছবির পাহাড়ি সান্যাল। তাঁরা ছেলে মেয়েকে কিচ্ছুটি বলেন না। ফেল করুক, পাশ করুক, গোল্লায় যাক, যা খুশি করুক। মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় সবার বাবা ডাবের জল নিয়ে গেলে ইনি নিয়ে যান কোল্ড ড্রিঙ্ক। বুঝেছেন এমন বাবা পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার!

ভোলে বাবা

youtube

দুষ্টু মিষ্টি বাবা। যেমন ‘কভি অলবিদা না কহনা’র ‘সেক্সি স্যাম!’ তাঁরা নিজেরাও বিন্দাস থাকেন আর ছেলেমেয়েদের জীবনে খুব একটা নাক গলান না। তবে এঁরা মধ্যবিত্ত হন না, বেশ উচ্চবিত্ত হন। না হলে দুষ্টুমি করবেন কী করে?

ওরে বাবা

youtube


এঁরা হচ্ছেন প্রতিবাদী বাবা। রাজনৈতিক আন্দোলন করা ডাকসাইটে জাঁদরেল বাবা। এঁরা সব বিষয়ে বাধা দেন। আপনি বলুন আমি ডাক্তার হব, বলবেন না ইঞ্জিনিয়ার হতে হবে। আপনি বলুন লাল, উনি বলবেন নীল। আপনি বলুন ডান উনি বলবেন বাম। এই যেমন বাংলা ছবির কমল মিত্র। সবেতেই ওঁর সমস্যা। উনি বাবা নয়, ওরে বাবা!

বাবা গো

youtube

এরা হচ্ছেন জ্যোতিষী বাবা। না তার মানে এই নয় যে সত্যি-সত্যি হাত দেখেন। মনে হচ্ছে, এই যে ছেলে বা মেয়ে জন্মালেই তাঁরা প্ল্যানিং শুরু করে দেন। যেমন ছেলে হলেই বলেন, “মেরা বেটা ইঞ্জিনিয়ার বানে গা!” কেন রে বাপু? ছেলের ঘটে আগে কিছু আছে কিনা সেটা দেখুন। আর মেয়ে হলেই শুরু হয়ে যাবে টাকা জমানো আর গয়না তৈরি। আহা মেয়ে তো, আজ না হয় কাল বিয়ে দিতেই হবে। যত্তসব।

উরি উরি বাবা

youtube

এরা হচ্ছেন গায়ে পড়া বাবা! মানে ছেলে মেয়েরা বড় হলেও এরা চুইং গামের মতো চিপকু হয়ে ছেলে মেয়েদের সঙ্গে সেঁটে থাকেন। গোদের উপর বিষ ফোঁড়া হয়ে এরা বাবা এবং মা দু’জনের ভুমিকাই একসঙ্গে পালন করেন। ছেলের কেরিয়ার আর মেয়ের পাত্র থেকে শুরু করে তাঁরা কী পরবে, কী খাবে বা কার সঙ্গে মিশবে স-অ-অ-ব তাঁরা স্থির করে দেন। আমারে তুলে নাও ভগবান!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এগুলোও আপনি পড়তে পারেন

কন্যা দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা ও মেসেজ

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!