logo
Logo
User
home / মেকআপ ট্রেন্ড ও আইডিয়া
গরমে কনের মেকআপ থাকুক অটুট

গরমে কনের মেকআপ থাকুক অটুট

গরমকালে বিয়ে করার ঝামেলা অনেক! বিয়ের প্রস্তুতিতেই সকলের অর্ধেক উৎসাহ শেষ হয়ে যাবে (summer bride makeup hacks), বিয়ের দিনে পৌঁছতে-পৌঁছতে তো বর-কনেরই বিয়ের ইচ্ছে চলে যাওয়ার কথায কিন্তু কিছু করার নেই, সকলের তো আর শীতকালে বিয়ে করা হয়ে ওঠে না। তাই ঘামতে-ঘামতে এই গরমেই ছাদনাতলায়…কিন্তু ভাবুন তো কনের অবস্থাটা! বরমশাই না হয় স্যান্ডো গেঞ্জি আর ধুতিতেই প্রায় পুরো বিয়েটা সেরে ফেলবেন। কনের তো আর সেই যো নেই! তাকে তো বেনারসি-ভারী গয়না-মোটা মালা-মুকুট, মায় বরের জোড়, সবকিছুই পরে বিয়েটি সারতে হবে, তা সে গরমে ঘেমে প্রাণ বেরিয়ে যাক না কেন! আর পরে অ্যালবামের পাতা উল্টোতে গিয়ে দেখবেন, কনের কপালে পাশে ঘাম, নাকের উপরটা ঘামে চকচক করছে কিংবা ঘামে কপালে লেপটে আছে চুল!

অবশ্য অনেকে বলবেন, আজকাল তো অনেক বাড়িতেই এসি থাকে, ফলে কনের ততটা কষ্টও হয় না। তা হয়তো সত্যি। কিন্তু আমরা বলছি, এসি থাকুক বা না-থাকুক, এই গরমে কনের সাজ যেন ঘামে একটুও নষ্ট না হয়, সেই রহস্য জেনে রাখতে ক্ষতি কী? তাই এই প্রতিবেদনে আমরা বলে দিচ্ছি এমন কিছু কায়দার কথা, যা গরমকালের কনের মেকআপ রাখবে অটুট! এই টিপসগুলি মেনে মেকআপ করুন। দেখবেন, এত গরমেও মেকআপ নষ্ট হবে না!

গরমে কনের বিয়ের মেকআপ কিভাবে করা উচিত

১। ভাল করে মুখ পরিষ্কার করে নিন – মেকআপ শুরুর আগে মুখে যেন একটুও তেল বা ময়লা না থাকে। তাই প্রথমে ফেসওয়াশ দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নিন। তারপর নরম তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে নিন।

২। স্ক্রাবিং কিন্তু মাস্ট – মেকআপ শুরুর আগে এক্সফোলিয়েট না করলে যেমন মেকআপই করুন না কেন, তা কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী হবে না। সেই কারণেই ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নেওয়ার পরে আরও একবার স্ক্রাবার দিয়ে মুখ ধুতে হবে, যাতে মৃতকোষের স্তর সরে যায়। এক্ষেত্রে বাজারচলতি কোনও ফেসওয়াশ যেমন ব্যবহার করতে পারেন, তেমনই বাড়িতে তৈরি স্ক্রাবার ব্যবহার করলেও কিন্তু সমান উপকার পাওয়া যায়।

৩। ময়শ্চারাইজ করতে ভুলবেন না – ত্বক শুষ্ক হয়ে গেলে মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী হবে না। তাই মেকআপ শুরু আগে অয়েল-ফ্রি ময়শ্চারাইজার মুখে লাগিয়ে নিতে হবে। এতে ত্বক যেমন আর্দ্র থাকবে, তেমনই জেল্লাও বাড়বে।

৪। প্রাইমার লাগাতে হবে – ময়শ্চারাইজার লাগানোর পর ঠিক মতো প্রাইমার লাগান। তাতে চটজলদি মেকআপ খারাপ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আর থাকবে না। প্রাইমার মূলত মেকআপকে ধরে রাখে। তাই তো ঘাম হলেও মেকআপ নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয় আর থাকে না। আপনার ত্বক যদি খুব তৈলাক্ত হয়, তা হলে অয়েল-ফ্রি প্রাইমার ব্যবহার করা উচিত।

৫। ফাউন্ডেশন লাগানোর কায়দা – প্রাইমার লাগানোর পর এবার ফাউন্ডেশনের পালা। ফাউন্ডেশন ব্রাশের সাহায্যে খুব ধীরে-ধীরে তরল ফাউন্ডেশন লাগিয়ে ফেলুন। তারপর ছোট্ট ব্রাশের সাহায্যে অল্প করে ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার নিয়ে সারা মুখে লাগান। পাউডার লাগালে ফাউন্ডেশন ঠিক থাকবে। অনেক মেকআপ আর্টিস্টই কনের জেল্লা বাড়ানোর জন্য ব্রোঞ্জার করেন। তবে গরমকালে তা না লাগানোই ভাল (summer bride makeup hacks), কারণ, ঘামে ব্রোঞ্জারের রং কালো হয়ে যেতে পারে। বরং তার বদলে ব্যবহার করতে পারেন ম্যাট শিমার পাউডার।

৬। ব্লাশ লাগান – একটা ব্রাশে অল্প করে ব্লাশ নিয়ে একটু ঝেরে নিন। এবার মুখটা একটু হাসিহাসি করে দুই গালে হলকা স্ট্রোকে লাগিয়ে ফেলুন। এতে দেখতে যেমন সুন্দর লাগবে, তেমনি ত্বকে উপস্থিত অতিরিক্ত তেলের কারণে মেকআপ নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও আর থাকবে না।

৭। চোখের মেকআপ খুব গুরুত্বপূর্ণ – এবার চোখের দিকে নিজর ফেরান। এক্ষেত্রে যে-যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে, তা হল…

  • কনসিলারের ব্যবহার মাস্ট। তাতে চোখের নীচের কালি যেমন মিলিয়ে যাবে, তেমনই বলিরেখাও আর দেখতে পাওয়া যাবে না।
  • একবার আইশ্য়াডো লাগিয়ে নেওয়ার পরে আরও একবার লাগাবেন। তাতে অল্প সময়েই চোখের মেকআপ খারাপ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আর থাকবে না।
  • ঘামের কারণে চোখের মেকআপ যাতে খারাপ না হয়ে যায়, তা সুনিশ্চিত করতে ওয়াটারপ্রুফ মাস্কারা ব্যবহার করতে ভুলবেন না!
  • আইলাইনারের ক্ষেত্রে একটু সাবধান থাকাই ভাল। এক্ষেত্রে কোনও উজ্জ্বল রং নয়, বরং কালো রঙের ওয়াটারপ্রুফ আইলাইনার ব্যবহার করাই নিরাপদ।

৮। লিপস্টিক লাগান বুদ্ধি করে – প্রথমে ঠোঁটে অল্প লিপ বাম লাগিয়ে নিন। তারপর লিপ পেনসিল দিয়ে আউটলাইন এঁকে নিন। এবার lipstick লাগানোর পালা। ব্রাশ দিয়ে লিপস্টিক লাগাবেন, সরাসরি নয়। এরপর Lipstick Sealer লাগাতে ভুলবেন না যেন! তাতে ঠোঁটের রং খারাপ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আর থাকবে না।

৯। চুল বেঁধে গরম তাড়ান – এই গরমে ভুলেও চুল খুলে রাখবেন না। বরং খোঁপা বা পনিটেল করতে পারেন। সঙ্গে ব্যবহার করা যেতে পারে নানা Hair Accessories, যা কনের সাজে আরও বৈচিত্র আনবে। আমরা এখানে তিনটি খোঁপার কথা বলে দিচ্ছি, যা বিয়ের দিন সকালে বাঁধা যেতেই পারে।

বুফোঁ খোঁপা – ভাল করে ব্যাক কোম্বিং করে নিন, এতে চুলের ভলিউম বাড়বে। তারপর চিরুনির সাহায্যে চুলটা ডান দিকে, নয়তো বাঁদিকে নিয়ে এসে উঁচু করে খোঁপা বেঁধে ফেলুন। দেখবেন, খোঁপাটা এমনির তুলনায় বেশি ফুলে আছে। একেই বলে বুফোঁ খোঁপা।

অ্যাঙ্গিউলার লুপ বান – শুনতে যতটা কঠিন লাগছে, এমন খোঁপা বাঁধা কিন্তু অতটা কঠিন কাজ নয়। একটা পনিটেল করে নিন। তারপর পনিটেলের শেষের দিকটা গোল করে খোঁপার আকারে মুড়িয়ে নিয়ে একটা পিন লাগিয়ে ফেলুন। ব্যস, খোঁপা তৈরি।

টপ নট – মাথা নিচু করে সমস্ত চুল উল্টে নিন। তারপর হাতের সাহায্যে মাথার উপর যতটা সম্ভব উঁচু করে তুলে খোঁপা বাঁধুন। রেডি আপনার টপ নট।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!        

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

12 Apr 2022

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text