home / Care
স্ক্যাল্প অ্যাকনে কী, কেন হয় আর নিরাময়ের উপায়ই বা কী – জেনে নিন

স্ক্যাল্প অ্যাকনে কী, কেন হয় আর নিরাময়ের উপায়ই বা কী – জেনে নিন

আচ্ছা, এমন কখনও হয়েছে, চুল আঁচড়াতে গিয়ে স্ক্যাল্পে খুব ব্যথা লাগল আর হাত দিয়ে দেখলেন স্ক্যাল্পে ছোট ছোট দানা বেরিয়েছে! আমার এমন অনেকবার হয়েছে। স্ক্যাল্পে গজানো এই ছোট ছোট দানা বা ব্রণকে বলা হয় স্ক্যাল্প অ্যাকনে (scalp acne)। আপনি হয়ত ভাবছেন যে অ্যাকনে তো সাধারণত মুখে হয়,কিন্তু সত্যি কথা বলতে কী, ত্বকের যে-কোনও জায়গায় অ্যাকনে হতে পারে। চুলের (hair care) ভিতরে, কানের পাশের অংশে এমনকি ঘাড়ের কাছেও স্ক্যাল্প অ্যাকনে হতে পারে।

শরীরে অন্যান্য অংশে ঠিক যে কারণে অ্যাকনের সমস্যা দেখা যায়, মাথার তালুতেও ঠিক একই কারণে স্ক্যাল্প অ্যাকনে (scalp acne) হতে পারে। তেল, শ্যাম্পু, চুলের অন্যান্য প্রোডাক্ট এবং ময়লা – যে-কোনও একটি বা সবগুলোই যদি মাথার তালুতে জমে থাকে, তাহলেই স্ক্যাল্প অ্যাকনে হবে। আমাদের চুলের ফলিকলে যখনই এগুলো জমতে থাকে, তখন এই সমস্যা হয়। তবে স্ক্যাল্প অ্যাকনে হওয়ার কারণ শুধু মাত্র চুলের (hair care) গোড়ায় ময়লা জমে থাকা নয়, অনেক সময়েই সিস্টের থেকেও স্ক্যাল্প অ্যাকনে হতে পারে।

স্ক্যাল্প অ্যাকনের কারণ

অতিরিক্ত হেয়ার স্টাইলিং টুলের ব্যবহারও স্ক্যাল্প অ্যাকনের অন্যতম কারণ (ছবি – শাটারস্টক)

নানা কারণে স্ক্যাল্প অ্যাকনে (scalp acne) হতে পারে। ভাল করে চুল ও চুলের গোড়া পরিষ্কার না করা, নিয়মিত চুল না ধোওয়া, প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু করা, চুলের ধরন অনুযায়ী প্রোডাক্ট ব্যবহার না করা, শরীরে হমোনের ভারসাম্যের তারতম্য হওয়া এবং সিস্ট। তবে সবচেয়ে বেশি স্ক্যাল্প অ্যাকনে তখনই হয় যখন চুল অপরিষ্কার থাকে এবং ভুল প্রোডাক্ট ব্যবহার করা হয়।

যখনই আমাদের স্ক্যাল্প ও চুলের গোড়া ঠিকভাবে পরিষ্কার (dirty hairs) হয় না, তখন চুলের গোড়ায় থাকা লোমকূপগুলি বন্ধ হয়ে যায়। সেখানে দিনের পর দিন নানা হেয়ার প্রোডাক্ট ও বাইরের ধুলো-ময়লা জমতে শুরু করে এবং তখনই ব্রণ বা স্ক্যাল্প অ্যাকনে দেখা দেয়। যদি আপনি প্রতিদিন চুল ধুতে থাকেন, সেক্ষেত্রেও কিন্তু চুল তার স্বাভাবিক তৈলাক্তভাব হারিয়ে ফেলে এবং মাথার তালু থেকে অতিরিক্ত সিবাম নিঃসৃত হয়। এর ফলে চুলের গোড়ায় তেল জমতে থাকে এবং তাতে ময়লা আটকে লোমকূপ বন্ধ (dirty hairs) করে দেয় ও স্ক্যাল্প অ্যাকনের উপদ্রব বেড়ে যায়।

ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিভাবে স্ক্যাল্প অ্যাকনে নিরাময় করা সম্ভব

স্ক্যাল্প অ্যাকনে নিরাময় করতে নিম পাতা ব্যবহার করতে পারেন (ছবি – শাটারস্টক)

১। নারকেল তেলের সঙ্গে নিম পাতা মিশিয়ে চুলে লাগাতে পারেন। নিম পাতা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, কাজেই জীবাণু সংক্রমণ রোধ করে স্ক্যাল্প অ্যাকনে (scalp acne) হওয়া আটকাতে সাহায্য করে।

২। স্নানের জলে টি-ট্রি অয়েল মিশিয়ে তা দিয়ে চুল ধুতে পারেন। টি-ট্রি অয়েলেও এমন কিছু উপাদান আছে যা মাথার তালুতে জীবাণু সংক্রমণ হতে দেয় না।

৩। এক মুঠো তুলসি পাতা এক কাপ জলে সেদ্ধ করে নিন। শ্যাম্পু করার পর তুলসি পাতা সেদ্ধ করা জল দিয়ে মাথার তালু ও চুল ধুয়ে ফেলুন। মিনিট পাঁচেক পর নর্মাল জলে আরও একবার চুল ধুয়ে নিন।

স্ক্যাল্প অ্যাকনে নিরাময় করার জন্য আমাদের পছন্দের কিছু হেয়ার প্রোডাক্ট

পরিশেষে একটাই কথা বলার, চুল নিয়মিত পরিষ্কার (hair care) রাখুন। অনেকের ধারণা আছে, রোজ শ্যাম্পু করলেই চুল পরিষ্কার থাকে, এমনটা কিন্তু আসলে নয়। শ্যাম্পু করার পর খুব ভাল করে চুল ধুতে হবে। প্রয়োজনে রাসায়নিক শ্যাম্পুর বদলে হাল্কা হেয়ার ক্লেনজার ব্যবহার করতে পারেন। চুলে খুব বেশি হেয়ার স্প্রে বা অন্যান্য স্টাইলিং টুল ব্যবহার না করলেই ভাল। যদি দেখেন খুব বেশি সমস্যা হচ্ছে, সেক্ষেত্রে অবশ্যই ভাল ডারমেটোলজিস্টের সাহায্য নিন স্ক্যাল্প অ্যাকনের (scalp acne) সমস্যা দূর করতে।  

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!  

07 Sep 2020

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text