home / Care
চুলের গোড়ায় ঘাম জমলেই সমস্যা, সমাধান দিলাম আমরা

চুলের গোড়ায় ঘাম জমলেই সমস্যা, সমাধান দিলাম আমরা

আপনার কি লম্বা চুল? নানা রকম কায়দা করে হেয়ারস্টাইল করেন? অথবা শর্ট হেয়ারে স্পাইক করতে ভালবাসেন? যাই পছন্দ করুন না কেন, মাথার তালুতে যদি ঘাম জমে, তা হলে কোনও হেয়ার স্টাইলই ভাল লাগবে না। সাজটাই মাঠে মারা যাবে। যদি কিছু নিয়ম মেনে চলেন, তা হলে সহজেই স্ক্যাল্পে ঘামের সমস্যা থেকে দূরে থাকা সম্ভব। দেখে নেওয়া যাক, এই সমস্যার কিছু সহজ সমাধান। (how to get rid of scalp sweat)

ঘেমো তালুর সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়

১। চুলের গোড়ায় যাতে একেবারেই ঘাম না জমতে পারে সেদিকে লক্ষ রাখুন। প্রতিদিন চুল ধুয়ে ফেলতে হবে।

২। কোনও রকম ব্যাকটেরিয়া যাতে মাথার তালুতে না জমে, সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। জলীয় ভাব চুলের গোড়ায় কম থাকলেই ভাল।

৩। সপ্তাহে ২-৩ দিন গোলাপ জল দিয়ে মাথা ধুয়ে নিন। গোলাপ জল ঘাম নিয়ন্ত্রণ করে। স্ক্যাল্প ঘেমে গিয়ে অনেক সময়ে দুর্গন্ধ বেরয়। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই গোলাপ জল সেই দুর্গন্ধ আটকাতে সক্ষম।

৪। হেয়ার স্ট্রেটনার, হিট ড্রায়ার, ইত্যাদি স্টাইলিং মেশিন কম ব্যবহার করুন। এই মেশিনগুলি ব্যবহার করলে স্ক্যাল্প অয়েলি হয়ে পড়ে। এই ধরনের স্টাইলিং মেশিন ব্যবহারে রোমকূপে খুশকির সমস্যাও হয়। (how to get rid of scalp sweat)

৫। এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করুন। স্ক্যাল্পকে সুস্থ-সতেজ রাখতে সাহায্য করে এসেনশিয়াল অয়েল। যে কোনও সাধারণ তেলের সঙ্গে ২-৩ ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে স্ক্যাল্পে মালিশ করে তার পরে ধুয়ে নিন। এতে ঘাম কম হবে।

ঘামের সমস্যা থাকলে ব্যবহার করতে পারেন রোজমেরি অয়েল

৬। হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন। বাড়িতে নিজে হেয়ার মাস্ক তৈরি করে ব্যবহার করুন। এতে চুল সুস্থ ও পরিষ্কার থাকবে।

৭। শ্যাম্পু করার আগে চুলের গোড়ায় ভিনিগার লাগিয়ে নিন। ভিনিগার মরা কোষগুলিকে দূর করে ফলে স্ক্যাল্পে ঘাম বসতে পারে না।

৮। পেপারমিন্ট অয়েলও শ্যাম্পু করার আগে ব্যবহার করতে পারেন। চুলকে সুস্থ ও সতেজ রাখে এবং গোড়াতে ঘাম বসে না।

৯। শ্যাম্পু করে অবশ্যই ভাল করে চুল শুকিয়ে নিন। জলের সঙ্গে ঘাম মিশে চুল আরও ভিজে যাবে।

১০। চুল শুকিয়ে নেওয়ার সমস্যা থাকলে ড্রাই শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। (how to get rid of scalp sweat)

১১। ব্যাগে সব সময়ই একটা ছোট তোয়ালে বা রুমাল রাখুন। বেশি ঘামের সমস্যা থাকলে কিছুক্ষণ অন্তর অন্তর মুছে নিতে পারবেন।

১২। চুলে রঙ যত কম ব্যবহার করা যায় ততই ভাল। কেমিক্যাল যুক্ত রঙ স্ক্যাল্পের ক্ষতি করে। মাথার তালুতে এতে ঘাম জমার সমস্যাও বাড়ে।

১৩। অনেকে চুলে বিভিন্ন রকম স্টাইল করতে ভালবাসেন। কখনও টেনে বেঁধে ফেললেন, কখনও বা খোলা। এ সব থেকে বিরত থাকুন। এক রকমের স্টাইল মেনটেন করুন অন্তত কিছু দিন।

১৪। একান্তই ঘাম জমার সমস্যা না কমলে, একটা সুন্দর হেয়ার কাট করিয়ে নিন। চুল একটু ছোট করে ফেলতে পারলে অনেক সময় সমস্যার সমাধান পাওয়া যায়। (how to get rid of scalp sweat)

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!      

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!

11 Nov 2021

Read More

read more articles like this
good points logo

good points text